লক্ষ্মীপুরে ভাটরা ইউনিয়ন যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

 কুপিয়ে হত্যা

কুপিয়ে হত্যা

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে উপজেলা ছাত্রলীগের উপশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক রিয়াদ হোসেন টিটুকে (২৩) মারধরের প্রতিবাদ করায় তার মামা ভাটরা ইউনিয়ন যুবলীগ কর্মী আনিছুর রহমান আজাদকে (৪৫) কুপিয়ে হত্যা করেছে মো. মহসিন নামের এক ব্যক্তি।  

এ সময় আহত হয় ইব্রাহিম মিয়া (৩৫) নামে আরেক ব্যক্তি। মারাত্মক আহতবাস্থায় ইব্রাহীম মিয়াকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নের উত্তর ভাটরা নান্দিয়ারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয় লোকজনের সহযোগীতায় ঘাতক মহসিনকে (৩০) আটক করে। আহত রিয়াদ হোসেন টিটুকে রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি ও নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য লক্ষ্মীপুর হসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়। নিহত আনিছুর রহমান একই গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে। তবে আটক মহসিন ভাটরা গ্রামের নান্দিয়ারায়।

হাসাপাতালে আহত রিয়াদ হোসেন টিটু জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমাকে নান্দিয়ারা গ্রামের দোকানের সামনে কোনো কারন ছাড়াই মারধর করে এলাকার চিহ্নিত মাদকসেবী মহসিন।

তিনি বলেন, মারধরের শিকার রিয়াদ হোসেন টিটু বিষয়টি তার মামা আনিছুর রহমান আজাদকে জানান। খবর পেয়ে আনিছুর রহমান আজাদ তার ভাগিনাকে মারধরের কারণ মহসিনকে জিজ্ঞাসা করলে উভয় পক্ষে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে ধারাল অস্ত্র দিয়ে আনিছুর রহমান আজাদকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে মহসিন।

রামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন হত্যার ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আমরা ঘটনাস্থল থেকে হত্যাকারী মো. মহসিন নামের একজনকে আটক করেছি। হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

পাঠকের মন্তব্য