মদ্যপ ছেলের ব্যবহারে অতিষ্ঠ, পিটিয়ে খুন করল বাবা

মদ্যপ ছেলের ব্যবহারে অতিষ্ঠ, পিটিয়ে খুন করল বাবা

মদ্যপ ছেলের ব্যবহারে অতিষ্ঠ, পিটিয়ে খুন করল বাবা

ছেলের দুর্ব্যবহারে অতিষ্ঠ হয়ে পিটিয়ে মারল বাবা। শুক্রবার রাতে ঘটনাটি ঘটে ভারতের মালবাজার ব্লকের গুরজংঝোরা চা বাগানে। মৃতের নাম সাবির আনসারি। বয়স ৩১ বছর। বাবার নাম শাহাবুদ্দিন আনসারি। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

মৃতের জ্যাঠা মুন্সি আনসারি জানান, মৃত সাবির আনসারি মাঝেমধ্যেই রাতে মদ খেয়ে বাড়ি ফিরত। বাড়িতে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করত সে। পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপের দিকে যাচ্ছিল। কোনওভাবেই সাবিরকে মূলস্রোতে ফেরাতে পারছিল না পরিবার। শুক্রবার রাত ১০টা নাগাদ একইভাবে মদ খেয়ে বাড়ি ফরে সাবির। মদ্যপ অবস্থায় মাকে গালিগালাজ করতে শুরু করে। সাবিরের বাবা শাহাবুদ্দিন তখন ভাত খাচ্ছিল। বিরক্ত হয়ে ধৈর্য হারিয়ে একটি লোহার রড দিয়ে ছেলের মাথায় আঘাত করে সে। সেই আঘাত সামলাতে করে পারেনি সাবির। একে লোহার রডের আঘাত, তার উপর সাবির তখন মদ্যপ ছিল। ফলে মারাত্মকভাবে জখম হয় সাবির।

দ্রুত তাঁকে মালবাজার সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু ডাক্তাররা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ছেলের মৃত্যুতে ভেঙে পড়ে বাবা শাহাবুদ্দিন। তিনি নিজেই থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, শাহাবুদ্দিন মালবাজার শহরে লটারির টিকিট বিক্রি করত। কারওর সাতেপাঁচে থাকত না। কিন্তু ছেলের ব্যবহার দিন দিন অসহ্য হয়ে উঠছিল তার কাছে। এনিয়ে তিনি প্রতিবেশী ও বন্ধুদের কাছে মাঝেমধ্যেই দুঃখপ্রকাশ করত। ঘটনার দিন সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে গিয়েছিল তার। সেই কারণেই সে সম্ভবত আঘাত করে। শাহাবুদ্দিন জানিয়েছে, “ওইদিন ছেলে মদ খেয়ে রড দিয়ে আমাকে মারতে আসে। নিজকে বাঁচাতে আমি রড কেড়ে পালটা আঘাত করি। তাতেই দুর্ঘটনা ঘটে।” মালবাজার মহকুমার এসডিপিও দেবাশিস চক্রবর্তী জানান, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত শাহাবুদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

পাঠকের মন্তব্য