এমন জন প্রতিনিধির সংখ্যাও কম নেই

এমন জন প্রতিনিধির সংখ্যাও কম নেই

এমন জন প্রতিনিধির সংখ্যাও কম নেই

অপরাধজনক একটি ঘটনা ঘটার সাথে সাথেই কোন না কোন জনপ্রতিনিধি ছুটে যান আইন-শৃংখলা রক্ষাকারি সংস্থার কাছে। তারা ধর্ণা দেন ঘটনায় যারা জড়িত তাদেরকে ছাড়িয়ে আনতে। তারা সাক্ষ্য দিতেও ভুল করেন না-এ ঘটনায় অপরাধীরা জড়িত নন। এমনই ঘটনার বড় নজির সৃষ্টি করেছে ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসার অধ্যক্ষ লম্পট সিরাজ কর্তৃক একই মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাতকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনা। ওই ঘটনায় স্থানীয় ক্ষমতাসীন দলের বড় নেতা থেকে স্থানীয় ছিঁচকে সন্ত্রাসীরাও জড়িত। তারা থানার ওসি মোয়াজ্জেমকে বশে নিয়ে ঘটনাটিকে ভিন্নখাতে নিয়ে যাবারও চেষ্টা করেছিল।

সম্প্রতি বরগুনার রিফাতকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার নেপথ্যেও কেবল সন্ত্রাসী নয়ন বন্ড জড়িত ছিল না। স্থানীয় ক্ষমতাসীনরাই এসব সন্ত্রাসীদের লালন-পালন করতেন। এ কারনেই এলাকায় নয়ন বন্ড সৃষ্টি হয়ে এত বড় জঘন্য ঘটনা ঘটিয়েছে।

গত বৃহষ্পতিবার কক্সবাজারের উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ডেইল পাড়ার ইমামের হাতে মসজিদের ভিতর ধর্ষণের শিকার হয় সাত বছরের এক শিশু। ধর্ষিতা শিশু ওই ইমামেরই ছাত্রী। এমন জঘন্য ঘটনার সাথেও এলাকার মেম্বারের সম্পৃত্ততা পাওয়া যায়। ঘটনাটির আপষ মীমাংসা করার নামে সাবেক ও বর্তমান ইউপি মেম্বারগন ইমামকে অর্থ দন্ড করেন। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ধর্ষিতা শিশুকে উদ্ধার করে থানায় এনে ধর্ষক হুজুরের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে। এমনকি ইয়াবা কারবারিদের পক্ষে কাজ করেন এমন জনপ্রতিনিধির সংখ্যাও কম নেই।

সর্বশেষ জঘন্য ঘটনাটি ঘটে মহেশখালী দ্বীপের বহুল আলোচিত ক্রাইম এরিয়া কালারমারছড়া ইউনিয়নের চাইল্যাতলী পাহাড়ে। একে একে স্থানীয় ১৪ জন পাষন্ড যুবক এক চাকরিজীবি তরুণীকে পাহাড়ের এক বসতঘরে নিয়ে সারারাত ধরে গনধর্ষণের ঘটনা ঘটায়। এমন জঘন্য ঘটনাটিও টানা ৫ দিন ধরে গোপন রাখেন কালারমারছড়া ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার ও বিএনপি নেতা লিয়াকত আলী এবং স্থানীয় নারী মেম্বার খতিজা বেগম।

এই দুই মেম্বার মিলে স্থানীয় ১৪ ধর্ষককে ঘটনা থেকে রেহাই দেয়ার জন্য যা যা করার দরকার তাই করেছেন। মেম্বারগন ১৪ ধর্ষকের নিকট থেকে মামলা ধামা চাপা দিতে বিপুল অংকের টাকাও আদায় করার অভিযোগ উঠেছে। এমনকি তারা ধর্ষণের আলামত নষ্ট করার মানসেই এসব ঘটনার আশ্রয় নেয়।

এমনসব একেরপর এক জঘন্য ঘটনার সাথে জনপ্রতিনিধি সহ নেতাদের জড়িত থাকার বিষয়ে সচেতন লোকজনের প্রশ্ন-যতসব জঘন্য ঘটনা থেকে রেহাই দেয়াই কি জনপ্রতিনিধির কাজ ?

পাঠকের মন্তব্য