বিজেপিতে যোগ দিলেন টলিউড অভিনেত্রী রিমঝিম মিত্র

বিজেপিতে যোগ দিলেন টলিউড অভিনেত্রী রিমঝিম মিত্র

বিজেপিতে যোগ দিলেন টলিউড অভিনেত্রী রিমঝিম মিত্র

রবিবার ২১ জুলাই। টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে থাবা বসানোর জন্য একুশের মঞ্চ থেকে হুংকার দিলেন তৃণমূল দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আরেকদিকে, বেলা গড়াতেই খবর এল রাজ্য বিজেপির সদর দপ্তরে অনুপম হাজরার হাত ধরে ইতিমধ্যেই পৌঁছে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী রিমঝিম মিত্র-সহ টলিপাড়ার আরও কজন তারকা। রবিবারই রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে গেরুয়া শিবিরের সদস্য হিসেবে নাম লেখালেন রিমঝিম। ফের রাজ্যের বিনোদন ইন্ডাস্ট্রিতে বড়সড় ধাক্কা খেল তৃণমূল।

প্রসঙ্গত, ১৮ জুলাই দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে আনুষ্ঠানিকভাবে ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দিয়েছেন টলিপাড়ার একঝাঁক ছোটপর্দা এবং বড়পর্দার জনপ্রিয় তারকারা। এঁদের মধ্যে ছিলেন অভিনেত্রী পার্নো মিত্র, রূপাঞ্জনা মিত্র, কাঞ্চনা মৈত্র, মৌমিতা গুপ্ত, রূপা ভট্টাচার্য, দেবরঞ্জন নাগ, লামা (অরিন্দম হালদার), বিশ্বজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়, ঋষি কৌশিক, সৌরভ চক্রবর্তী, অনিন্দ্য পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ মোট ১২ জন তারকা। আর আজ রবিবার, ২১ জুলাই টলিউডের বিজেপি ব্রিগেডে নাম লেখালেন অভিনেত্রী রিমঝিম মিত্র-সহ আরও কজন তারকা। কিছুদিন আগেই তাঁরা অনুপম হাজরার নেতৃত্বে দিল্লি দিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে এসেছেন বলে সূত্রের খবর। 

দিন কয়েক আগেই বিজেপি-ঘনিষ্ঠ বঙ্গীয় চলচ্চিত্র পরিষদে যোগ দিয়েছেন বামপন্থী অভিনেতা বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়। লকেট চট্টোপাধ্যায় এবং রূপার হাত ধরেই যে টলিউডে গেরুয়া শিবিরে সিঁধ কাটতে সুবিধে হল, এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক মহলের একাংশ। বহুদিন ধরেই পার্নো এবং রিমঝিম মিত্রের বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা শোনা যাচ্ছিল। দিন কয়েক আগেই বিজেপিতে নাম লিখিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছিলেন পার্নো। এবার তা করলেন আরেক অভিনেত্রী রিমঝিম মিত্র।  

একুশের মঞ্চ থেকে বক্তৃতা দিতে গিয়ে গেরুয়া শিবিরকে তোপ দেগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, “ইডির দপ্তরে শতাব্দী-প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণাকে ডেকে বিজেপিতে যোগ দিতে চাপ দেওয়া হচ্ছে। বিজেপিতে নাম লেখানোর জন্য এজেন্সি মারফত চাপ সৃষ্টি করছে ওরা। ওঁদের মতো অনেক অভিনেতাদেরই ইডি ডাকছে। যাঁরা যোগাযোগ রাখছেন তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে। ইডির দপ্তরে ডেকে নিয়ে গিয়ে বলা হচ্ছে, অমুক বিজেপি নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করো।” তৃণমূল দলনেত্রীর এধরনের বক্তব্যের জন্যই তাঁকে পালটা একহাত নিলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। একুশের শহিদ সমাবেশের পর এক সাংবাদিক সম্মেলনে দিলীপ ঘোষ বলেন, “কাকে ইন্ধন জোগানো হয়েছে ইডির দপ্তরে? আমাকে প্রমাণ দেখান। তৃণমূলের তরফ থেকে টলিউডের একাধিক কলাকুশীদের পারিশ্রমিক না দিয়ে তাঁদের কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।”

টলিউডের অন্দরে ঘাসফুল বনাম পদ্মফুলের লড়াই যে দিনে দিনে বেশ প্রকট আকার ধারণ করছে, তা বেশ বোঝাই যাচ্ছিল। আর এবার রাজ্যের বিনোদন ইন্ডাস্ট্রিতে গেরুয়া শিবির যে বড়সড় থাবা বসাল, তা হলফ করে বলাই যায়। রাজ্যের ১৮টি লোকসভা আসনে জিতে নিতে না নিতেই টলিউডে ইতিমধ্যেই গঠন হয়ে গিয়েছে বিজেপি ঘনিষ্ঠ দু-দুটি সংগঠন। আর সেই হাওয়াতে গা ভাসিয়ে ইতিমধ্যেই রং বদল করা শুরু হয়েছে স্টুডিও পাড়ায়। লক্ষ্য, ২০২১ সালের বিধানসভা ভোট। উল্লেখ্য, রাজ্যের বিনোদন ইন্ডাস্ট্রিতে বড়সড় পরিবর্তনের দুন্দুভি যে এবার বেজে গিয়েছে, তা বলাই বাহুল্য। 

পাঠকের মন্তব্য