কুড়িগ্রামে বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করলেন নানক

কুড়িগ্রামে বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করলেন নানক

কুড়িগ্রামে বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করলেন নানক

দুর্ভাগ্যজনক হল একটি দল যারা রাজনৈতিক দায়িত্ব, সামাজিক দায়িত্ব ও রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালন না করে তারা শুধু সরকারের সমালোচনা করছে।

সোমবার (২২ জুলাই) সকালে কুড়িগ্রামে বন্যা দুর্গতদের সহায়তা করতে গিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা এখানে এসেছি কোনো রাজনৈতিক দল কিন্তু আসেনি। অথচ ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, সরকার ব্যর্থ হয়েছে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় এজন্য সরকারের পদত্যাগ করা উচিত। এই হলো তাদের রাজনৈতিক দূরদর্শিতা ও রাজনৈতিক প্রজ্ঞা। এই দৈন্যতা নিয়েই তারা এগিয়ে চলছে।

কুড়িগ্রামে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে চিলমারী, উলিপুর, কুড়িগ্রাম সদর, নাগেশ্বরী, রৌমারী ও রাজিবপুরে কয়েক হাজার বন্যা দুর্গতদের সাহায্য করা হয়।
এসময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীর কবির নানক। 

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন, কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি মো. জাফর আলী, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান প্রমুখ।

এ সময় পাঁচ হাজার পরিবারকে ১০ কেজি করে চাল, সয়াবিন তেল, ডাল, চিনি, চিড়া, গুড়, মুড়ি, নুডুলস, বিস্কুট, পানি ও স্যালাইন বিতরণ করা হয়। এছাড়াও জেলায় সরকারিভাবে ৮শ মেট্রিক টন চাল, ১৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং ছয় হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়।

অপরদিকে জেলা পরিষদের উদ্যোগে ১০ লাখ টাকার শুকনো খাবার, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি কর্তৃক চিলমারীতে ৫শ পরিবারকে সাড়ে চার হাজার টাকা করে ২২ লাখ ৫০ হাজার টাকা, ডব্লিউএফপি কর্তৃক সদর উপজেলায় এক হাজার ২৫১টি, উলিপুরে ৮৫৫টি এবং চিলমারী উপজেলায় দুই হাজার ৩০৮টি পরিবারে সাড়ে চার হাজার টাকা করে এক কোটি ৯৮ লাখ ৬৩ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। 

পাঠকের মন্তব্য