খেলার উদ্দেশ্যে নয়, বন্ধুর সাথে দেখা করতেই ক্যাসিনোতে ! 

খেলার উদ্দেশ্যে নয়, বন্ধুর সাথে দেখা করতেই ক্যাসিনোতে ! 

খেলার উদ্দেশ্যে নয়, বন্ধুর সাথে দেখা করতেই ক্যাসিনোতে ! 

খেলার উদ্দেশ্যে নয় বরং বন্ধুর সাথে দেখা করতেই ক্যাসিনোতে গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ভারপ্রাপ্ত কোচ ও সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন। বলেন, সিরিজ হেরে যাওয়ায় আপসেট ছিলাম। আমার একজন বন্ধুর সাথে দেখা করতেই সেখানে যাওয়া। ওরা কয়েকজন ছিল সেখানে। ক্যাসিনোতে শুধু কার্ড খেলা হয় না, খাবারও পাওয়া যায়।

এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিতর্ক ছড়িয়ে পড়ার কথা জানালে সাবেক এই অধিনায়ক বলেন, এটা তো আমি চাইলেও থামাতে পারবো না। তবে, বিষয়টা স্বস্তিকর না। যে বা যারা এটা ছড়িয়েছে ঠিক করেনি। আমি ব্যক্তি মানুষ হিসেবে কোথাও ঘুরতে যেতেই পারি। আর আমি সেখানে ৫-৭ মিনিট থেকেই চলে আসি।

ক্যাসিনোর ছবি নিয়ে বিতর্ক তার পেশাদারিত্বে কোনো ছাপ ফেলবে না বলে মনে করেন বাংলাদেশ দলের ভারপ্রাপ্ত কোচ ও ম্যানেজার।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ২ ম্যাচের ব্যর্থতায় এরইমধ্যে সিরিজ হেরে গেছে বাংলাদেশ। এই হতাশার মধ্যেই কলম্বোর একটি ক্যাসিনোতে খালেদ মাহমুদ সুজনের ঘুরতে যাওয়ার ছবি আলোচনার জন্ম দিয়েছে।

এর আগে, ২০১৫ বিশ্বকাপ চলাকালে অস্ট্রেলিয়ায় ক্যাসিনো বিতর্কে জড়িয়েছেন তখনকার ম্যানেজার ও জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক। বিশ্বকাপ চলাকালে ডলার হাতে অস্ট্রেলিয়ার একটি ক্যাসিনোতে দেখা যায় তাকে। সেবার অবশ্য ক্যাসিনোতে যাওয়ার কথাও স্বীকার করছিলেন তিনি। তবে জুয়া খেলার কথা অস্বীকার করেন সুজন।

পাঠকের মন্তব্য