সুন্দরগঞ্জে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ভুয়া পিএস কারাগারে

সুন্দরগঞ্জে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ভুয়া পিএস কারাগারে

সুন্দরগঞ্জে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ভুয়া পিএস কারাগারে

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা, কৃষি ও সমবায় উপ-কমিটির চেয়ারম্যান ড. মীর্জা  জলিলের পিএস পরিচয়দাতা নাসির খাঁন (২৫)কে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে কারাগারে প্রেরণ করেছে থানা পুলিশ। 

শুক্রবার (৯ আগষ্ট) দুপুরে থানার ডিউটি অফিসার এসআই- একেএম শাহীন ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা- এসআই জসীম উদ্দিন  এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, বিজ্ঞ আদালতের মঞ্জুরকৃত একদিনের রিমান্ডের প্রেক্ষিতে থানায় নিয়ে নাসির খাঁনকে অবৈধ অস্ত্র ও চাঁদাবাজী বিষয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। ভুয়া পিএস নাসির খাঁন উপজেলার বৈদ্যনাথ গ্রামের জাহিদুল ইসলামের ছেলে। সে দীর্ঘ দিন থেকে আ'লীগ নেতা ড. মীর্জা জলিলের কন্ঠ ব্যবহার ও তার পিএস পরিচয়ে এসপি, ডিআইজিসহ বিভিন্ন অফিসে প্রতারণা করে ফায়দা লুটছিল। এছাড়া, পুলিশ কনষ্টেবল পদে নিয়াগের বিষয়ে কয়েকটি সুপারিশও করে। একই পরিচয়ে দাপট দেখিয়ে গত ১৩ জুলাই পুলিশ হত্যাসহ বিভিন্ন নাশকতামূলক কর্মকান্ডে দায়েরকৃত মামলার কতিপয় আসামীকে সঙ্গে নিয়ে থানার সামনে পুলিশকে উদ্দেশ্য করে নানান অনৈতিক ও উস্কানিমূলক কথাবার্তা বলে হুমকী প্রদর্শন করে। এমনকি, পুলিশকে অশালীন গালি-গালাজ করাসহ ইউনিফর্ম খুলে নেয়ারও হুমকি প্রদান করে। 

এতে পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হওয়ায় নাসির খাঁনকে আটক পূর্বক ফৌজদারী কার্যবিধির ৫৪ ধারায় গ্রেফতার করে তাকে আদালতে পাঠানা হয়। বর্তমানে নাসির খাঁনের বিরিদ্ধে ৪টি জাঁদাবাজী মামলা রয়েছে। এসআই জসীম উদ্দিন জানান, নাসির খাঁনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করা হলে বিজ্ঞ আদালতে একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

থানা অফিসার ইনচার্জ- এসএম আব্দুস সোবহান আসামী নাসির খাঁনকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পাঠকের মন্তব্য