ডিমের খোসা ফেলে দেন ? ব্যবহার জানলে চমকে উঠবেন

ডিমের খোসা ফেলে দেন ? ব্যবহার জানলে চমকে উঠবেন

ডিমের খোসা ফেলে দেন ? ব্যবহার জানলে চমকে উঠবেন

বাড়িতে আচমকা অতিথির আগমন৷ ফ্রিজ খুলে দেখলেন তাঁকে দেওয়ার মতো মিষ্টি কিংবা পানীয় কিছুই নেই৷ ফ্রিজ বন্ধ করতে যাবেন, ঠিক সেই সময়ই চোখের সামনে দেখলেন, ডিম৷ ঘাম দিয়ে জ্বর ছাড়ার মতোই অবস্থা তখন আপনার৷ অতিথি আপ্যায়ণ সারতে পারবেন ভেবেই শান্ত হল মন৷ এভাবে প্রত্যেক গৃহস্থকে লোকলজ্জার মুখ রক্ষা করে ডিম৷ কিন্তু জানেন কি এভাবে শুধু রসনাতৃপ্তিতেই নয়, আরও নানাভাবে কাজে লাগানো যেতে পারে ডিমের খোসা৷ তাই আর ডিমের খোসা ফেলে না দিয়ে তা কাজে লাগান৷

আপনি কি বাসনের পোড়া, চটচটে দাগ তুলতে গিয়ে হিমশিম খান? তবে আপনার ভোগান্তি কমাতে পারে একমাত্র ডিমের খোসা৷ ঝকঝকে বাসন পাওয়ার জন্য ডিমের খোসার জুড়ি মেলা ভার৷

শ্রাবণের একেবারে শেষলগ্নে বেশ জমিয়ে ব্যাটিং করছে বর্ষা৷ প্রায় প্রতিদিনই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি লেগেই রয়েছে৷ আর বর্ষাকাল মানেই স্যাঁতস্যাঁতে ভাব৷ সঙ্গে রয়েছে পোকামাকড়ের উপদ্রব৷ তাই আপনার সাধের বাড়িকে পোকামাকড়ের কবল থেকে বাঁচাতে ব্যবহার করুন ডিমের খোসা৷ দেখবেন মুহূর্তেই বাড়ি থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে পোকামাকড়, আরশোলা, টিকটিকি৷

আপনার কি বাগান তৈরির সাধ রয়েছে? কিন্তু পোকাদের হামলায় বারবার সাধের বাগান নষ্ট হয়ে যায় তাই তো? হাজারও রাসায়নিকের ব্যবহারেও কাজের কাজ কিছুই হয় না? এই সমস্যা দেখে আপনাকে মুক্তি দিতে পারে একমাত্র ডিমের খোসা৷ তাই গাছের গোড়ায় গোড়ায় ডিমের খোসা গুঁড়ো করে ছড়িয়ে দিন। দেখবেন পোকামাকড় গাছের ধারে কাছেও ঘেঁষবে না। নষ্ট হবে না আপনার বাগানের সাধের গাছ৷

গাঁটের ব্যথা বা জয়েন্ট পেইন কমাতেও ডিমের খোসার কোনও তুলনা নেই৷ কিন্তু কীভাবে করবেন ব্যবহার? একটি পাত্রে অ্যাপেল সিডার ভিনিগার নিন৷ তার সঙ্গে ডিমের খোসার গুঁড়ো মিশিয়ে দিন৷ এবার তা ধীরে ধীরে ব্যথা জায়গায় লাগান৷ সপ্তাহখানেক ব্যবহারে তফাৎ নিজেই বুঝতে পারবেন৷

রূপচর্চা করেন না এমন মহিলার সংখ্যা প্রায় নগণ্য বললেই চলে৷ কালো দাগছোপ মুক্ত ত্বক পেতে কত কিছুই না করেন অনেকেই৷ কিন্তু জানেন কি টাকা খরচ না করেই শুধু ডিমের খোসা দিয়ে ঝকঝকে ত্বক পেতে পারেন আপনি৷ উষ্ণ জলে ডিমের খোসার গুঁড়ো মিশিয়ে গালে লাগান৷ আর হয়ে উঠুন মোহময়ী৷

পাঠকের মন্তব্য