গৃহকর্মী টুনির ভবিষ্যতের দায়িত্ব নিয়েছেন ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ 

‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ 

‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ 

গৃহকর্মীর গ্রামের বাড়িতে গেলেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মোর্তজার পুরো পরিবার। গত শুক্রবার (২৩ আগস্ট) দুপুরে শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ী উপজেলার যোগানিয়া ইউনিয়নের যোগানিয়া কাচারি মসজিদের কাছে তার গৃহকর্মী টুনির বাড়িতে আসেন ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’।

প্রথমদিকে গোপন থাকলেও নিভৃত পল্লীতে দুটি মাইক্রোবাসে ঢাকা থেকে মাশরাফির আসার খবর ছড়িয়ে পড়ে। লোকজনের ভিড় সামলাতে মাত্র আড়াই ঘণ্টা অবস্থানের পর তিনি শেরপুর ত্যাগ করেন। খবর পেয়ে মাশরাফিকে শুভেচ্ছা জানাতে যোগানিয়ায় ছুটে যান নালিতাবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান মোকছেদুর রহমান লেবু। এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরাও ওই বাড়িতে হাজির হন।

উপজেলা চেয়ারম্যান জানান, ‘বাসার নিরাপত্তাকর্মীর কাজ থেকে টুনির বাবা আক্কাছ আলী বিদায় নিলেও তার পরিবারের প্রতি মাশরাফির রয়েছে দারুণ মমতা। তিনি আক্কাছ আলীকে চিকিৎসা সহায়তা দিয়েছেন, তাদের মাথা গোঁজার জন্য গ্রামের বাড়িতে একটি সেমিপাকা ঘর বানিয়ে দিয়েছেন। সর্বোপরি তিনি টুনির ভবিষ্যতের দায়িত্ব নিয়েছেন। এখানে না এলে এসব কথা আমরা জানতামই না।’

স্থানীয়সূত্রে জানা যায়, এবারের কোরবানির ঈদ মাশরাফির বাসাতে কাটলেও পরে গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে আসার ইচ্ছে ছিল টুনির। সেই ইচ্ছে পূরণে কেবল টুনি নয়, নিজের গোটা পরিবার নিয়েই টুনিদের গ্রামের বাড়িতে হঠাৎ করেই মাশরাফি চলে আসেন। মাশরাফির আসার বিষয়টি টুনির বাবা-মা জানলেও তারা কাউকেই কিছু জানাননি।

পাঠকের মন্তব্য