এদেশের মানুষ জিয়াউর রহমানের মরণোত্তর বিচার করবে

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান

বন্ধুবন্ধুর খুনিদের পৃষ্ঠপোষকতার অপরাধে এদেশের মানুষ জিয়াউর রহমানের মরণোত্তর বিচার করবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান। তিনি বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীরা বঙ্গবন্ধু হত্যার প্লট তৈরি করেছিল। আপনারা জানেন এই হত্যার প্রধান পরিকল্পনাকারী কে ছিলেন। ইতিহাস বলে দেয়, যিনি হত্যাকারীদের পৃষ্ঠপোষকতা করেছিলেন, বিচারের পথ রুদ্ধ করে দিয়েছিলেন- তিনি জিয়াউর রহমান। বাংলাদেশের মানুষ তার মরণোত্তর বিচার করে ছাড়বে ইনশাহ আল্লাহ।

সোমবার (২৬ আগস্ট) বিকেলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু কৃষিবিদ পরিষদ।

আব্দুর রহমান বলেন, ৭৫-এ পিতা হারানোর বিষ বুকে নিয়ে আমরা আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলেছিলাম। তখন আমাদেরকে দেশত্যাগে বাধ্য করেছিল। তখন একটাই স্বপ্ন ছিল, আকাঙ্ক্ষা ছিল যে- কবে দেখতে পারব বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার হয়েছে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ হাসিনা বুকে পাথর চাপা দিয়ে এ দেশে ফিরে ঘোষণা করেছিলেন যে, বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করে বাংলাদেশের মানুষের মুখে হাসি ফোটাবেন। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে হবে। তাহলেই আমরা পিতা হত্যার বিচার পাব।

আব্দুর রহমান আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু থাকলে এ দেশ বহু আগেই মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হতো। বঙ্গবন্ধু আমাদের পাশে নেই, কিন্তু তিনি বাংলার মানুষের উন্নয়নের যে পরিকল্পনা করেছিলেন তা বাস্তবায়ন করছে জননেত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর একজন হত্যাকারীও বাংলার মাটিতে বিচরণ করতে পারবে না। যারা বিদেশ পালিয়েছে তাদেরকেও ফেরত আনা হবে।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও বিএম মোজাম্মেল হক, কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।

পাঠকের মন্তব্য