জাতীয় কবি হিসেবে কাজী নজরুল গ্রহণযোগ্য ও সমাদৃত 

জাতীয় কবি হিসেবে কাজী নজরুল ইসলাম গ্রহণযোগ্য ও সমাদৃত 

জাতীয় কবি হিসেবে কাজী নজরুল ইসলাম গ্রহণযোগ্য ও সমাদৃত 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাতীয় কবি হিসেবে গেজেটের মাধ্যমে স্বীকৃতির চেয়ে বাস্তবে কর্মের মাধ্যমে কাজী নজরুল ইসলামকে ধারণ করা জরুরি।

আজ মঙ্গলবার সকালে জাতীয় কবি কাজী নজরুলের ৪৩তম প্রয়াণ দিবসে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ শেষে একথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্পের মুলোৎপাটন করে নজরুলের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হবে।

জাতীয় ও রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন আয়োজনে কাজী নজরুল ইসলামকে জাতীয় কবি হিসেবে লেখা হয়। তবে তাকে জাতীয় কবি ঘোষণা করা সংক্রান্ত সরকারি কোনো প্রজ্ঞাপন বা দলিল নেই। লোকমুখে প্রচারিত তথ্যের ভিত্তিতে তিনি বাংলাদেশের জাতীয় কবি, কাগজে-কলমে প্রাতিষ্ঠানিক ঘোষণার মাধ্যমে নন বিধায় বহুদিন ধরে নজরুলকে গেজেটের মাধ্যমে এ স্বীকৃতি দেয়ার আহ্বান জানিয়ে আসছেন নজরুলের পরিবারের সদস্য ও বিশিষ্টজনেরা।

এ সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় কবি হিসেবে তিনি গ্রহণযোগ্য ও সমাদৃত। এবং সবার মুখের কথা নয়, এটা আমাদের বিশ্বাসে, আমাদের প্রতিটি কর্মেই আমরা প্রমাণ করছি। আমরা প্রত্যেকে কর্মে জাতীয় কবি হিসেবে তার চেতনাকে ধারণ করছি। তার স্বপ্নকে ধারণ করছি এটাই বড় কথা। জাতীয় কবি হিসেবে তাকে সম্মান করছি শ্রদ্ধা করছি এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

কবি নজরুলের জাতীয় কবি হিসেবে গেজেট প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, তিনি আমাদের হৃদয়ে মনে প্রাণে জাতীয় কবি। এটার আলাদা কিছু করে সেটি প্রকাশের অপেক্ষা রাখে না।

পাঠকের মন্তব্য