ডেঙ্গু প্রতিরোধে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে দুই সিটি 

ডেঙ্গু প্রতিরোধে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে দুই সিটি 

ডেঙ্গু প্রতিরোধে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে দুই সিটি 

ডেঙ্গু রোগের বাহক এডিস মশা নিধনে ব্যর্থতা এবং এরই প্রেক্ষিতে ডেঙ্গুর ভয়াবহ বিস্তার লাভ করায় ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের প্রতি ফের অসন্তোষ প্রকাশ করেছে হাইকোর্ট। বুধবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের যুগ্ম-বেঞ্চ এ অসন্তোষ প্রকাশ করে।

এডিস মশা নিধনে অকার্যকর ওষুধ আনায় (নতুন ওষুধ আনার আগে) কারা দায়ী আজ সে বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিলের শুনানিতে দুই সিটি করপোরেশনের উদ্দেশে হাইকোর্ট বলে, ‘এখন আপনারা তৎপর হয়েছেন। যদি আরও আগেই তৎপর হতেন তাহলে ডেঙ্গুতে এতগুলো মানুষের প্রাণ যেতো না। এতগুলো লোক মারা গেল। দুই সিটি করপোরেশন এখানে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে।’

আদালত আরও বলে, যদিও রাজধানীতে ধুলোবালি নিয়ন্ত্রণ এবং এ নিয়ে এ মামলার প্রেক্ষিত ছিল কিন্তু তারপরও জনস্বার্থ বিবেচনা করে এডিস মশা নিয়ে আমরা আদেশ দিয়েছিলাম। তারা কোনো গুরুত্ব দেয়নি। যদি যথাসময়ে দুই সিটি করপোরেশন ব্যবস্থা নিত তাহলে আজকে এমন পরিস্থিতি হতো না।

আদালতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী তৌফিক ইনাম। দক্ষিণ সিটির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী সাঈদ আহমেদ রাজা। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ বি এম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

সংশ্লিষ্ট মামলার রিটকারী হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের সভাপতি অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ধুলা দূষণরোধে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশের প্রেক্ষিতে দুই সিটি করপোরেশনের নেওয়া পদক্ষেপ অবহিতকরণের সময় প্রসঙ্গক্রমে এডিস মশা ও ডেঙ্গুর বিস্তার নিয়ে বেশকিছু আদেশ দিয়েছিল হাইকোর্টের এই বেঞ্চ।

পাঠকের মন্তব্য