আমাকে নয়, পুলিশকে লক্ষ্য করেই বোমা হামলা : মন্ত্রী 

আমাকে নয়, পুলিশকে লক্ষ্য করেই বোমা হামলা : মন্ত্রী 

আমাকে নয়, পুলিশকে লক্ষ্য করেই বোমা হামলা : মন্ত্রী 

পুলিশকে লক্ষ্য করেই সায়েন্স ল্যাবে ককটেল হামলা হয়েছে বলে মনে করছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, যদিও হামলায় তার নিরাপত্তায় নিয়োজিত একজন পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন।

শনিবার রাত সোয়া ৯টার দিকে মন্ত্রী ধানমণ্ডিতে একটি অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে সায়েন্স ল্যাব মোড় পেরিয়ে সিটি কলেজের সামনের রাস্তায় ঢোকার আগে এই হামলা হয়।

ককটেলে আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক শাহাবুদ্দিন (৪০)। তার ডান পায়ে গোড়ালির উপরে যখম হয়েছে। এ ঘটনায় আমিনুল নামে ট্রাফিক পুলিশের একজন কনস্টেবলও সামান্য আহত হয়েছেন।

তাকে লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়েছে কি না জানতে চাইলে মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, “মনে হয় না, আমার গাড়ি টার্গেট করে এই হামলা চালানো হয়েছে। পুলিশকে লক্ষ্য করেই হামলাটি চালানো হয়েছে।”

ঘটনার বিবরণে মন্ত্রী জানান, যানজট থাকায় তার প্রটেকশনের গাড়ি থেকে নেমে গিয়েছিলেন এএসআই শাহাবুদ্দিন। “ওরা অনেক সময় হয় কী, সাধারণত ট্রাফিক জ্যাম থাকলে নেমে ট্রাফিক পুলিশের সাথে কথা বলে বা নিজেরা একটু ক্লিয়ার করে।”

শাহাবুদ্দিন নেমে ১০০ গজের মতো দূরে গিয়েছিলেন জানিয়ে তিনি বলেন, “পুলিশ বক্সের ওখানে, ওখানে আরও পাঁচ-সাতজন পুলিশ ছিল। ওখানেই একটা ককটেল নিক্ষেপ করা হয়েছে।” বিস্ফোরণের আওয়াজ পেলেও সেটা যে ককটেল হামলা তা তখন বুঝতে পারেননি মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

“আসলে আমি তখন জানি না। কারণ আমি যে অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলাম সে অনুষ্ঠান ছিল খুব কাছে। যার জন্য গাড়িতে অন্যান্য যে পুলিশ ছিল তারাও বোঝে নাই যে, এ রকম ঘটনা। আমি গাড়িতে যে আওয়াজটা শুনলাম তখন জিজ্ঞেস করলাম বোমা ফুটল না কি চাকা বার্স্ট হয়েছে? তখন বলল, স্যার কোনো গাড়ির চাকা বার্স্ট হয়েছে।”

পরে পুলিশের কন্ট্রোল রুম থেকে তাকে এই হামলার খবর জানানো হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী। তিনি বলেন, “যখন অনুষ্ঠানস্থলে গিয়ে নামলাম তখন গানম্যান বলল, কন্ট্রোল রুম থেকে জানানো হয়েছে যে, বোমা বার্স্ট হয়েছে। আমি যেখানে থাকি যেন এলাকা থেকে সরে যাই।”

পরে হামলায় নিজের প্রটেকশনের কর্মকর্তার আহত হওয়ার খবর জানতে পারেন বলে জানান তিনি। যারা দেশে অস্থিরতা তৈরি করে সুবিধা নিতে চায়, তারাই এই হামলা চালিয়েছে বলে মনে করছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী।

পাঠকের মন্তব্য