অ্যাম্বুলেন্সে করে সরাসরি বাবার বাসায় গেলেন মিন্নি 

অ্যাম্বুলেন্সে করে সরাসরি বাবার বাসায় গেলেন মিন্নি 

অ্যাম্বুলেন্সে করে সরাসরি বাবার বাসায় গেলেন মিন্নি 

জামিনে মুক্তি পেয়ে ঘরে ফিরলেন বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা ওরফে মিন্নি।মঙ্গলবার (০৩ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে কারাগার থেকে মুক্তি পান মিন্নি। আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় মুক্তি পর কারা ফটকে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি। তাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে সরাসরি শহরের মইঠা এলাকায় বাবার বাসায় নেয়া হয়।

এর আগে বেলা ১২টার দিকে হাইকোর্টের দেওয়া মিন্নির জামিনাদেশ বরগুনা আদালতে পৌঁছায়। হাইকোর্টের আদেশের সই করা কপি বরগুনার আদালতে এসে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গেই মিন্নির পক্ষে জামিননামা (বেলবন্ড) দাখিল করেন তার আইনজীবী মাহবুবুল বারী আসলাম। এরপর সব দাফতরিক কাজ শেষ করে বিকেল ৩টা ৫০ মিনিটে জামিনাদেশ নিয়ে কারাগারে যান মিন্নির আইনজীবী আসলাম।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয় রিফাত শরীফকে। ওই ঘটনার ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

ভিডিওটিতে সাব্বির আহমেদ ওরফে নয়ন বন্ড ও রিফাত ফরাজী তাকে (রিফাত শরীফ) ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতারি কোপাতে দেখা যায়। গত ২ জুলাই নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন। পরে রিফাত ফরাজীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গত ১৬ জুলাই সারাদিন জেরা করার পর নিহত শরীফের স্ত্রী মিন্নিকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং পরে তাকে আদালতে হাজির করে পাঁচদিনের রিমান্ড চাওয়া হলে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

রিফাত হত্যার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা নিয়ে মিন্নি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়। তবে মিন্নির পরিবারের দাবি, পুলিশ যা বলতে বলেছে, আদালতে তা-ই বলেছেন তিনি।

পাঠকের মন্তব্য