“একজন মুসলিম হয়ে কীভাবে গণেশ পুজো করলেন সারা”

“একজন মুসলিম হয়ে কীভাবে গণেশ পুজো করলেন সারা”

“একজন মুসলিম হয়ে কীভাবে গণেশ পুজো করলেন সারা”

নেটদুনিয়ায় সেলেবদের ট্রোল হওয়া বর্তমানে নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। পান থেকে চুন খসলেই হল! ট্রোলের কোপে পড়তে হয় তারকাদের। এবার সেই তালিকায় নবতম সংযোজন সইফকন্যা সারা আলি খান।

“আপনার লজ্জা করে না? মহরমের মাসে লজ্জা। আপনি কি মুসলিম নন?” 

তা ঠিক কী কারণে ট্রোলের শিকার হলেন সারা? আসলে গণেশ চতুর্থীর আমেজে মেতে গণপতির সঙ্গে ছবি শেয়ার করাতেই যত বিপত্তি বেঁধেছে। মুসলিম হয়ে কেন হিন্দু দেবতার পুজো করবেন?  এই প্রশ্ন বাণেই সারাকে বিঁধেছেন নেটিজেনদের একাংশ। আসলে গণেশ চতুর্থীতে আর ৫ জন বলি তারকাদের মতোই পুজোর ছবি শেয়ার করে ছিলেন নবাবপুত্রী সারা আলি খান। আর সেই পোস্টকে ঘিরেই ধর্মনিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। গণেশ মূর্তির সামনে দাঁড়িয়ে পুজোতে ব্যস্ত সারা। সেই ছবি তুলে শেয়ার করার জেরেই নেটিজেনদের রোষানলে পড়তে হয় অভিনেত্রীকে। 

সইফ আলি খান ও তাঁর প্রথম পক্ষের স্ত্রী অমৃতা সিং-এর মেয়ে সারা। বর্তমানে বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রীদের মধ্যে তিনি অন্যতম। আসলে গণেশ চতুর্থীর দিন মন্দিরে গিয়ে পুজো দিয়েছিলেন মা-মেয়ে। সেই ছবিই পোস্ট করেছিলেন ইনস্টাগ্রামে। ক্যাপশনে সারা লিখেছিলেন, “গণপতি বাপ্পা মোরিয়া! আশা করি গণেশজি সব বাধা দূর করে হাসি ফোটাবেন সবার মুখে। জীবন ভরিয়ে দেবেন পজিটিভ চিন্তা ও সাফল্যে।” 

এই পোস্ট দেখেই রে-রে করে উঠেছেন নেটিজেনদের একাংশ। প্রশ্ন তুলেছেন, “একজন মুসলিম হয়ে কীভাবে গণেশ পুজো করলেন সারা?” অনেকেই আবার সারার উদ্দেশ্যে লিখেছেন, “আপনার লজ্জা করে না? মহরমের মাসে লজ্জা। আপনি কি মুসলিম নন?” যদিও সারা কোনওরকম মন্তব্য করেননি এপ্রসঙ্গে। তবে তাঁর অনুরাগীরাই সারার হয়ে মুখ খুলেছেন। প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে মা অমৃতার সঙ্গে বসে ইদের শুভেচ্ছাও জানিয়েছিলেন সারা আলি খান। আজও এই ধর্ম নিরপেক্ষ দেশে দেবতা বন্দনা নিয়ে কটুক্তি শুনতে হয় একজন মানুষকে, আর তা যে লজ্জার সারার পোস্টের কমেন্ট সেকশন পড়লেই তা বেশ বোঝা যায়।

পাঠকের মন্তব্য