বড়পুকুরিয়া দুর্নীতি : খালেদা জিয়াসহ ১১ আসামির শুনানি ৭ অক্টোবর 

বড়পুকুরিয়া দুর্নীতি মামলা

বড়পুকুরিয়া দুর্নীতি মামলা

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ ১১ আসামির বিরুদ্ধে বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলায় অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য আগামী ৭ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন আদালত।

আজ (বৃহস্পতিবার) এ মামলায় অভিযোগ গঠন শুনানির দিন ধার্য ছিল। কিন্তু মামলায় অভিযুক্ত খালেদা জিয়া কারা হেফাজতে চিকিৎসাধীন থাকায় তাকে আদালতে উপস্থিত করা হয়নি।

এ জন্য কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগার চত্তরে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার ২ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক এ এইচ এম রুহুল ইমরান আজকের মতো মামলার শুনানি মুলতবি রাখেন। সেইসঙ্গে আগামী ৭ অক্টোবর অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য দিন ধার্য করেন তিনি।

উল্লেখ্য, দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লাখনির কয়লা উত্তোলন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণে ঠিকাদার নিয়োগে অনিয়ম এবং রাষ্ট্রের ১৫৮ কোটি ৭১ লাখ টাকার ক্ষতি ও আত্মসাতের অভিযোগে ২০০৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি শাহবাগ থানায় মামলাটি করা হয়। ওই বছরের ৫ অক্টোবর ১৬ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

ইতোপূর্বে দুদকের দুই মামলায় খালেদা জিয়া কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়েছে। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিশেষ আদালতের দেয়া ৫ বছরের কারাদণ্ড সরকার পক্ষের আপিলের প্রেক্ষিতে বাড়িয়ে ১০ করা হয়েছে।  তা ছাড়া জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিশেষ আদালতে ৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন তিনি।

২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার পর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে অবস্থিত পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি রাখা হয় খালেদা জিয়াকে। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন।

পাঠকের মন্তব্য