বাংলাদেশকে ১৬৫ রানের টার্গেট দিয়েছে আফগানরা

বাংলাদেশকে ১৬৫ রানের টার্গেট দিয়েছে আফগানরা

বাংলাদেশকে ১৬৫ রানের টার্গেট দিয়েছে আফগানরা

বেশ ভোল স্কোরই গড়েছেন আফগান ব্যাটসম্যানরা। ৬ উইকেট হারিয়ে ২০ ওভারে উঠিয়েছেন ১৬৪ রান। পিচ বিবেচনায় এই স্কোরকে চ্যালেঞ্জিং মনে করা হচ্ছে।

৪০ রানে ৪ উইকেট পতনের পর দলের হাল ধরেন মোহাম্মদ নবী ও আসগর আফগান। তাদের জুটিতে ভালোভাবেই খেলায় ফেরে আফগানিস্তান। ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা এই জুটির ভাঙতে চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন টাইগাররা।

একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে যাওয়া আসগর আফগানকে ক্যাচ তুলতে বাধ্য করেন তাইজুল ইসলাম। কিন্তু কি দুর্ভাগ্য! রিপ্লেতে দেখা যায় বল ডেলিভারি দেয়ার সময় তাইজুলের পা বাউন্ডারি লাইন ক্রস করে। যে কারণে আম্পায়ার নো বলের সংকেত দেন। নো বলের কারণে নতুন জীবন পান আসগর। দলীয় ৯৩/৪ আর ব্যক্তিগত ৩০ রানে নতুন লাইফ পাওয়া এরপর আরও বেশি আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করেন আফগানিস্তানের সাবেক এ অধিনায়ক।

রোববার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বিপদে পড়ে যায় আফগানরা।

ইনিংসের শুরুতেই বিপর্যয়ে আফগানিস্তান। ৫.৪ ওভারে ৪০ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়েছে আফগানরা।

আফগান শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তার দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে ভেঙে যায় রহমানউল্লাহ গুরবাজের স্টাম্প। ইনিংসের প্রথম বলেই গোল্ডেন ডাকে সাজঘরে ফেরেন আফগান এ ওপেনার। সাইফউদ্দিনের বলে গুরবাজের অফ স্টাম্প ভেঙে যায়।

এরপর দ্বিতীয় ওভারে সাকিব আল হাসানের বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন অন্য ওপেনার হযরতউল্লাহ জাজাই। নিজের দ্বিতীয় এবং ইনিংসের তৃতীয় ওভারে ফের বোলিংয়ে এসে নাজিব তারাকির উইকেট তুলে নেন সাইফউদ্দিন।

আগের ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ব্যাটিং তাণ্ডব চালিয়েছিলেন নজিবুল্লাহ জাদরান। শনিবার ৩০ বলে অপরাজিত ৬৯ রান করা আফগান এ তারকা ব্যাটসম্যানকে খোলস থেকে বের হওয়ার আগেই সৌম্য সরকারের ক্যাচে পরিণত করেন সাকিব। সাজঘরে ফেরার আগে ৭ বলে মাত্র ৫ রান করার সুযোগ পান নজিবুল্লাহ।

আফগানিস্তান: হযরতউল্লাহ জাজাই, রহমানউল্লাহ গুরবাজ, নাজিব তারাকি, আসগর আফগান, মোহাম্মদ নবী, নজিবুল্লাহ জাদরান, গুলবাদিন নাইব, রশিদ খান, করিম জানাত, ফরিদ আহমেদ, মুজিব উর রহমান।

বাংলাদেশ: লিটন কুমার দাস, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান রুম্মন, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, তাইজুল ইসলাম ও মোস্তাফিজুর রহমান।

পাঠকের মন্তব্য