সজিব ওয়াজেদ জয়কে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ঘোষণা 

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনকে সুষ্ঠু সুন্দর, স্বচ্ছ এবং নিয়মতান্ত্রিকভাবে পরিচালনার জন্য এবং সকল গ্রুপকে একত্রিত করার লক্ষ্যে সকল স্তরের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে গত শনিবার সভা অত্যন্ত সফলভাবে শেষ হয়। সভায় গুরুত্বপূর্ণ কিছু সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। 

সজিব ওয়াজেদ জয়কে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের 'প্রতিষ্ঠাতা' ঘোষণাসহ সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দের যৌথ সভার সিদ্ধান্তসমূহঃ-  

১) যেহেতু জনাব সজিব ওয়াজেদ জয় আমেরিকায় সর্বপ্রথম 'বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন' নামে সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন এবং বর্তমান সভাপতি ড. একে আব্দুল মোমেন সংগঠনটির তৎকালীন উপদেষ্টা ছিলেন (ড. মোমেন সাহেব  নিজেও বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন সভায় এটা বলেছেন) সেহেতু বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র জনাব সজিব ওয়াজেদ জয়কে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের 'প্রতিষ্ঠাতা' হিসেবে ঘোষণা করা হয়।  

২) সংগঠনের ঐক্য এবং অগ্রগতির স্বার্থে জনাব মশিউর মালেককে নির্বাহী সভাপতি পদ হতে এবং রাশিদা হক কণিকাকে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদকের পদ হতে অব্যাহতি দেয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। 

৩) গঠনতন্ত্রে আওয়ামীলীগ বিরোধী কথাবার্তা এবং সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নির্বাহী ক্ষমতা কেড়ে নিয়ে নির্বাহী সভাপতি কতৃক সকল ক্ষমতা কুক্ষিগত করাসহ অন্যান্য অসঙ্গতির কারণে গঠনতন্ত্র স্তগিত করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। গনতন্ত্র সংশোধনের লক্ষ্যে একটি 'গঠনতন্ত্র সংশোধন/প্রণয়ন কমিটি' গঠনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। 

৪। বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নামে দ্রুত 'বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্ট' এর অনুমোদন গ্রহণের লক্ষ্যে একটি 'লিয়াঁজো কমিটি' গঠনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। 

৫। বর্তমানে ৬/৭ টি গ্রুপে বিভক্ত এ সংগঠন সবার জন্যই অস্বস্তিকর, লজ্জাজনক এবং বিব্রতকর বিধায় সকল গ্রুপকে একত্রিত করে একটি অধিকতর শক্তিশালী বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন গঠনের লক্ষ্যে সকল পক্ষকে নিয়ে একটি 'ঐক্য সমন্নয় কমিটি' গঠনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। 

৬। ঢাকায় বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের একটি মানসম্পন্ন অফিস অতি দ্রুত নেয়ার সিদ্ধাম্ত গৃহীত হয়।

৭। হিসাব-নিকাশ ও লেনদেন পরীক্ষাসহ বিভিন্ন অনিয়ম এবং অসাংগঠনিক কাজ চিহ্নিত করতে একটি 'অডিট কমিটি' গঠনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

৮। ব্যক্তির ইচ্ছায় কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্ত ছাড়া কমিটি গঠন এবং কোন কোন ক্ষেত্রে আওয়ামীলীগ বিরোধী লোকদেরকে পদায়ন করায় ক্ষোভ প্রকাশ করতঃ কমিটি গঠন ও পদায়নের পূর্বে যাচাই বাছাইয়ের নিমিত্তে একটি 'সার্চ কমিটি' গঠনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

৯। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে বন্যার্তদের সহায়তার উদ্যেশ্যে ২০১৭ সালে সংগঠনের দেশ-বিদেশের নেতাকর্মীদের নিকট হতে সংগৃহীত অর্থ অনতিবিলম্বে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে জমা দিতে সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেয়া হয়।

সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সহসভাপতি (সাবেক সাধারণ সম্পাদক) মোহাম্মদ ফেরদৌস আলম। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাংগঠনিক সম্পাদক আকলিমা বেগম এবং সঞ্চালনায় ছিলেন সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন বাদল।  

বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্যবৃন্দ, স্থায়ী কমিটি/প্রতিষ্ঠাতা সদস্যবৃন্দ এবং সিনিয়র নেতৃবৃন্দসহ অনেকেই। বিপুল সংখ্যক নেতৃবৃন্দ সভায় স্বতস্ফূর্তভাবে উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মন্তব্য