তথ্যমন্ত্রীর বহনকারী ইন্ডিয়ার বিমানে মৌমাছির হামলা

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ

মৌমাছির হামলায় প্রায় তিন ঘণ্টা দেরিতে ছাড়ল তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদকে বহনকারী ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইট এ আই-৭৪৩।

রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে বিমানটি কলকাতা নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আগরতলার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল। তবে মৌমাছি বিভ্রাটের কারণে প্রায় তিন ঘণ্টা দেরিতে ছাড়ে বিমানটি।

বিমানে যাত্রী হিসেবে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদসহ ১৩৬ যাত্রী ও ক্রেবিন ক্রু ছিলেন।

এ সময় তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন কলকাতায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের কয়েকজন কর্মকর্তাসহ ১৮ জনের একটি প্রতিনিধি দল। তারা সবাই ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন।

এয়ার ইন্ডিয়া সূত্রে বলা হয়, সকালে এয়ারবাস এ-৩১৯ বিমানটি যাত্রা শুরুর প্রস্তুতি নিতে যখন ট্যাক্সি-বে থেকে রানওয়ের দিকে যাচ্ছিল তখন এক ঝাঁক মৌমাছি এসে বিমানটিকে ঘিরে ধরে। পাইলটের আসনের সামনে বিমানের উইন্ডস্ক্রিনটিতে বসে পড়ে মৌমাছির দল। পাইলটের নজরে আসা মাত্রই ওই জায়গাতেই বিমানটিকে দাঁড় করিয়ে দেন তিনি। সে সময় বিমানের ওয়াইপার ব্যবহার করেও কোনো কাজ হচ্ছিল না। পরে খবর দেয়া হয় এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলারকে (এটিসি) এবং ফায়ার সার্ভিসকে।

তথ্যমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানটিকে টারম্যাকে ফিরিয়ে আনা হয় এবং সম্পূর্ণ বিপদমুক্ত করে প্রায় তিন ঘণ্টা পর দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে বিমানটি আগরতলার উদ্দেশে উড়ে যায়।

মৌমাছি হামলায় বিমান বা যাত্রীদের কোনো ক্ষয়-ক্ষতি হয়নি। তবে ওই বিমানে কিছু যান্ত্রিক জটিলতা ধরা পরে। গত শনিবার বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে কলকাতায় যান বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

পাঠকের মন্তব্য