সেবার ব্রত নিয়েই কাজ করে যাচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী

সেবার ব্রত নিয়েই কাজ করে যাচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী

সেবার ব্রত নিয়েই কাজ করে যাচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী

প্রতিবেশী দেশগুলোর সাথে যেকোনো সমস্যা দ্বিপাক্ষিক আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ‘ড. কালাম স্মৃতি ইন্টারন্যাশনাল এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ডস-২০১৯’ পদক গ্রহণ করেন তিনি। বলেন, দেশের উন্নয়নের জন্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ব্যবহার অপরিহার্য। সর্বস্তরের মানুষের কাছে প্রযুক্তির সুবিধা পৌঁছে দিতে সরকার পরিকল্পনা নিয়েছে। দেশের মানুষের কর্মক্ষমতা ও সামর্থ্য বিবেচনা করে সরকার সামগ্রিক উন্নয়নের লক্ষ্য স্থির করেছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

শান্তি, উন্নয়ন আর নারী কল্যাণে অবদানের জন্য ভারতের ড. কালাম ইন্টারন্যাশনাল এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ডস-২০১৯ দেয়া হলো শেখ হাসিনাকে। ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি, বিশিষ্ট বিজ্ঞানী ড. এ পি জে আব্দুল কালামের সম্মানে এই পদক। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শেখ হাসিনার হাতে পদক তুলে দেন ভারতের কর্মকর্তারা।

এসময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ক্ষমতা ভোগ করার জন্য নয়, মানুষের সেবা করার ব্রত নিয়েই কাজ করে যাচ্ছি। কতগুলো লক্ষ্য স্থির করে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আশা করি, সেটা অর্জন করতে পারবো।

বাংলাদেশ সবসময় প্রতিবেশীর সাথে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে আগ্রহী। আর ভারতের সাথে সেই সর্ম্পকে বরাবরই অটুট। বলেন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করার জন্য ভারতের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমরা সব সময় বন্ধুসুলভ সম্পর্ক ধরে রাখার চেষ্টা করেছি। বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক গত এক দশকে অনেক উঁচুতে পৌঁছেছে।

ছিটমহল বিনিময় ও স্থল সীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়নে বাংলাদেশ ও ভারত যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে তা নজিরবিহীন বলেও জানান রাষ্ট্রপ্রধান। তিনি বলেন, নানান কারণে প্রতিবেশীর সাথে সমস্যা হতেই পারে। আলোচনার মাধ্যমে তা সমাধানের ওপর জোর দেন তিনি।

এসময় তিনি বাংলাদেশের প্রতি ড. কালামের সহমর্মিতার কথাও তুলে ধরেন। শেখ হাসিনা বলেন এই অ্যাওয়ার্ড তাকে দেশের জন্য কাজ করতে আরও উৎসাহিত করবে।

পাঠকের মন্তব্য