ক্যাসিনো ব্যবসায় জড়িতদের আয়ের উৎস খোঁজে এনবিআর 

ক্যাসিনো ব্যবসায় জড়িতদের আয়ের উৎস খোঁজে এনবিআর 

ক্যাসিনো ব্যবসায় জড়িতদের আয়ের উৎস খোঁজে এনবিআর 

ক্যাসিনো ব্যবসার সঙ্গে জড়িতদের আয়ের উৎস জানতে মাঠে নেমেছে এনবিআর। ইতোমধ্যে জব্দ করা হয়েছে যুবলীগ নেতা জি কে শামীম এবং তার পরিবারের সদস্যদের ব্যাংক হিসাব। আরেক যুবলীগ নেতা ও ক্যাসিনো ব্যবসায়ী খালেদ মাহমুদের ব্যাংক হিসাবও জব্দের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এদিকে, ক্যাসিনো ব্যবসায় জড়িত দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর মোমিনুল হক সাঈদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দুই মাস আগেই লিখিত সুপারিশ করা হয়েছিলো বলে জানিয়েছেন মেয়র।

ক্রীড়া সামগ্রী ও শিল্পের মুলধনী যন্ত্রপাতির আড়ালে ক্যাসিনো সামগ্রীর আমদানি এবং অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসার ব্যাপকতা সর্ম্পকে একেবারে অজানা ছিল এনবিআরের। র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর কেন্দ্রস্থলে কয়েক ডজন ঝলমলে ক্যাসিনো আবিস্কার এবং সেখান থেকে ক্যাসিনো ব্যবসার সরঞ্জাম, বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য ও নগদ টাকা উদ্ধারের পর টনক নড়েছে সংস্থাটির।

এরপরই জাতীয় রাজস্ব বোর্ড জড়িতদের আয়ের উৎস জানতে জিকে শামীম ও তার পরিবারের সদস্যদের সব ব্যাংক হিসাব জব্দের প্রক্রিয়া শুরু করে। সেই সঙ্গে কারা ও কিভাবে এসব অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসার সরঞ্জাম আমদানি করেছে সেটা খতিয়ে দেখতে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে এনবিআর।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ক্যাসিনো ব্যবসার সাথে জড়িতরা ঠিক মতো কর দিয়েছি কিনা, তাদের টাকা পয়সার উৎস কি, সেইগুলো অনুসন্ধানে আমরা মাঠে নেমে গিয়েছি। কোন প্রকার দুর্নীতির মাধ্যমে এগুলো আসছে কি না, সেইগুলো অনুসন্ধানের জন্য ইতিমধ্যে আমরা আমাদের চট্টগ্রাম কাস্টমসে নির্দেশনা পাঠিয়েছি।

এদিকে ক্যাসিনো ব্যবসায় জড়িত সন্দেহভাজন কাউন্সিলর মোমিনুল হক সাঈদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য দুই মাস আগেই স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে লিখিত সুপারিশ করা হলেও কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি বলে জানিয়েছেন ঢাকা সিটি করপোরেশন দক্ষিণের মেয়র।

মেয়র বলেন, ইমিগ্রেশন কর্তপক্ষের কাছে লিখিত ভাবে আমরা চিঠি দিয়েছি। যাতে তিনি বিনা অনুমতিতে দেশ ত্যাগ করতে না পারে। দুভার্গ্য হলেও সত্য, যে সে কিন্ত এখন বিদেশে রয়েছে।

এদিকে ক্যাসিনোতে জড়িত ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যাংক হিসাব থেকে যাতে অর্থ উত্তোলন করতে না পারে, ব্যাংকগুলোকে সে নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ফিনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট-বিএফআইইউ।

পাঠকের মন্তব্য