বাঁশ ঝাড়ে পড়নের শার্ট ঝুঁলিয়ে এক কৃষকের আত্মহত্যা 

বাঁশ ঝাড়ে পড়নের শার্ট ঝুঁলিয়ে এক কৃষকের আত্মহত্যা 

বাঁশ ঝাড়ে পড়নের শার্ট ঝুঁলিয়ে এক কৃষকের আত্মহত্যা 

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে দ্বীর্ঘ কয়েকবছর রোগভোগের পর বাঁশ ঝাড়ে গলায় নিজের পড়নের শার্ট ঝুলিয়ে মজিবুর রহমান (৪৫) নামে এক কৃষক আত্বহত্যা করেছেন।

সোমবার রাতে নিহতের মরদেহ মর্গ থেকে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসারপর এলাকার লোকজনের মধ্যে শোক বিরাজ করছে। নিহত মজিবুর উপজেলার বড়দল উত্তর ইউনিয়নের মানিগাঁও গ্রামের প্রয়াত আয়ত আলীর ছেলে ও পেশায় প্রান্তি কৃষক ছিলেন। নিহতের ২ ছেলে ৩ মেয়ে ও স্ত্রী রয়েছে।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার প্রান্তিক কৃষক মজিবুর রহমান বিগত কয়েক বছরধরে হার্ট, দ্বীর্ঘমেয়াদী শাস কষ্ট সহ নানা রোগে ভোগছিলেন।  এলাকা ও এলাকার বাহিরে সুনামগঞ্জ, সিলেট ভৈরবে মানিগাঁও চক বাজারের দোকানকোটা এবং বেশ কয়েক কেদার ফসলী জমি বিক্রির টাকায় বারবার চিকিৎসা গ্রহনের পরও সুস্থ্য না হওয়ায় হতাশা ও অভাব ঝেঁকে বসে তাকে। 

এ পর্যায়ে মানসিকভাবে বিপর্যস্থ হয়ে তিনি সোমবার ভোররাত সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ৬টার মধ্যে উপজেলার মাণিগাঁও নিজ বসতবাড়ির পেছনে মাহারাম নদীর তীরে বাঁশ ঝাড়ে গিয়ে নিজের পড়নের শার্ট গলায় ঝুঁলিয়ে আত্বহত্যা করেন। 

খবর পেয়ে থানা পুলিশ দুপুরে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

মঙ্গলবার তাহিরপুর থানার বাদাঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আমির উদ্দিন বলেন, মজিবুর রহমানের আত্বহত্যার কারন সম্পর্কে পরিবারের লোকজন রোগ ভোগান্তি ও হত্যাশার কথা জানিয়েছেন। 

পাঠকের মন্তব্য