গৌরনদীতে শত্রুতা করে মেহগনি বাগানে হামলা অর্ধশত গাছ কর্তৃন

গৌরনদীতে শত্রুতা করে মেহগনি বাগানে হামলা অর্ধশত গাছ কর্তৃন

গৌরনদীতে শত্রুতা করে মেহগনি বাগানে হামলা অর্ধশত গাছ কর্তৃন

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর ইউনিয়নের দক্ষিন পশ্চিম পাড়া গ্রামে জমাজমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গতকাল মঙ্গলবার সকালে কতিপয় সন্ত্রাসী একটি মেহগনি বাগানে হামলা চালিয়ে অর্ধশত গাছ কেটে সাবার করে তা লুট করে নিয়ে গেছে। বাধা দিতে গিয়ে সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হয়েছেন বাগান মালিক মজিবুর রহমান (৫০)। এ ঘটনায় মজিবুর রহমান বাদি হয়ে বেলাল সরদার ও তার ছেলে ইউসুফ সরদারকে আসামি করে গতকাল মঙ্গলবার বাটাজোর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতে মামলা দায়ের করেছে।  

মাহিলাড়া ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা (তহসিলদার) ও ক্ষতিগ্রস্থ মজিবুর রহমান জানান, তারা তিন ভাই চার বোন। বাবার মৃত্যুর পরে সকল জমাজমি ভাই বোনদের মধ্যে ভাগ বাটোয়ারা করে সকলেই ভোগ দখল করে আসছেন। বাটাজোর ইউনিয়নের দক্ষিন-পশ্চিম পাড়া মৌজার ভিএস খতিয়ান নং-৩০, নং দাগ নং -৮২ এর ৩৩ শতাংশ জমিতে  (পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত) ৫ বছর পূর্বে তিনি মেহগনি বাগান করেন। অতি সম্প্রতি সময়ে তার বড় ভাই আব্দুস সোবাহান সরদারের ছেলে বেলাল সরদারের (৩৫) নেতৃত্বে তার পুকুরের মাছ ধরে বিক্রি করে দেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ তৈরী হয়। 

মজিবুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, পূর্ব শত্রতার জের ধরে গতকাল মঙ্গলবার সকালে বড় ভাইর ছেলে সন্ত্রাসী বেলাল সরদারের নেতৃত্বে তার ছেলে ইউসুফ সরদার (১৮)সহ ২/৩ জন সন্ত্রাসী  আমার মেহগনি বাগানে ধারাল দা ও কুঠার নিয়ে হামলা চালায়। এ সময় আমি বাধা দিলে সন্ত্রাসীরা আমার উপর চড়াও হয়। এক পর্যায়ে বাগানের ৪টি ফলজ সুপারি গাছসহ অর্ধশত মেহগনি গাছ কেটে সাবার করে দেয় এবং ওই গাছগুলো লুট করে নিয়ে যায়। গাছের বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় ২০/২৫ হাজার টাকা। এ ঘটনায় আমি বাটাজোর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতে মামলা করেছি। 

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে বেলাল সরদার ও তার ছেলে ইউসুফ সরদার এ ব্যাপারে কোন কথা বলতে রাজি হননি। তবে বেলালের বাবা আব্দুস সোবাহান সরদার (৬৫) বলেন, মেহগনি বাগানটি ছোট ভাই মজিবুর রহমানের। ছেলে বেলাল রাগের বসবর্তি হয়ে  গাছ কেটে ফেলেছে। বাটাজোর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুর রব হাওলাদার বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। স্বাক্ষ প্রমানের ভিত্তিতে ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

পাঠকের মন্তব্য