বরিশালের গৌরনদীতে দুইজনের লাশ উদ্ধার

বরিশালের গৌরনদীতে দুইজনের লাশ উদ্ধার

বরিশালের গৌরনদীতে দুইজনের লাশ উদ্ধার

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার পৃথক স্থান থেকে দুইজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে লাশের ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

গৌরনদী মডেল থানা সূত্রে জানা গেছে, সোমবার দুপুরে উপজেলার কান্ডপাশা গ্রামের সাইফুল ইসলাম স্বাধীন হাওলাদারের (শারিরিক প্রতিবন্ধী) বসতঘরের রুয়ার সাথে তার প্রতিবন্ধী কিশোরী সামিয়া আক্তার বিথীর (১৫) ঝুলন্ত লাশ দেখে স্থানীয়রা থানা পুলিশকে খবর দেয়। বিকেলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। নিহত বিথী  কান্ডপাশা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ট শ্রেণীর ছাত্রী ছিলো। অপরদিকে মঙ্গলবার সকাল আটটার দিকে গৌরনদী পৌর এলাকার সুন্দরদী মহল্লার মুন্সী বাড়ির পুকুর থেকে শামীম হাওলাদার নামে এক মাদক বিক্রেতার ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত শামীম বেজগাতি গ্রামের মোকলেছুর রহমানের পুত্র। তার বিরুদ্ধে গৌরনদী মডেল থানায় মাদক মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। সে পুলিশের তালিকাভূক্ত মাদক বিক্রেতা ছিলো। স্থানীয়রা জানান, গত রবিবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে সুন্দরদী মহল্লার মুন্সী বাড়ির পুকুরের কাছে দুই ব্যক্তি মাদক বিক্রি করছিলো। এসময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের ধাওয়া করলে মাদক বিক্রেতারা মুন্সী বাড়ির পুকুরে ঝাঁপ দেয়। সেই থেকে শামীম নিখোঁজ ছিলো। 

পৃথক লাশ উদ্ধারের ঘটনায় গৌরনদী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহাবুবুর রহমান জানান, কান্ডপাশা গ্রামের বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্বাধীণ হাওলাদারের এক মাত্র কন্যা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিথি আক্তারের লাশ সোমবার দুপুরে তাদের বসতঘরের রুয়ার সাথে ওড়না দিয়ে ঝুলতে দেখে প্রতিবেশীরা থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে বিথির লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। এছাড়াও সুন্দরদী মহল্লার মুন্সী বাড়ির পুকুরে শামীম হাওলাদার নামের এক যুবকের ভাসমান লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা থানা পুলিশকে খবর দেয়। তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। উভয় লাশের ময়নাতদন্তের জন্য শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, ময়না তদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত লাশ দুইটির মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না।

পাঠকের মন্তব্য