সুন্দরগঞ্জে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় পিতাকে মারপিট

সুন্দরগঞ্জে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় পিতাকে মারপিট

সুন্দরগঞ্জে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় পিতাকে মারপিট

উপজেলায় মেয়ের ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় ইভটিজারদের হাতে পিতা আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

জানা গেছে, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সুন্দরগঞ্জে কর্মরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোখলেছুর রহমানের মেয়ে আমিনা সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনীর ছাত্রী (১৩) কে দহবন্দ ইউনিয়নের জরমনদী গ্রামের চান মিয়া মিস্ত্রীর ছেলে মাহফুল ইসলাম মুন্না দীর্ঘ থেকে ফেইসবুক ও স্কুল যাওয়া-আসার পথে নানান ভাবে উত্যক্ত করে আসছিল। এদিকে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মোখলেছুর রহমানের দহবন্দ ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন সরকারী বাসভবন (বিএস কোয়াটার) এর সামনে মুন্নাকে ঘোরাফেরা করতে দেখলে মোখলেছুর রহমান তার কাছে ঘোরাফেরার কারণ জানতে চাইলে মুন্না ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। 

এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে ধস্তাধস্তি শুরু হয়। খরব পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দুজনকেই আটক করে থানায় নেয়। পরে পুলিশ মোখলেছুরকে ছেড়ে দিয়ে মুন্নাকে আটক রাখেন। মোখলেছুর থানা থেকে বাড়ি ফেরার সময় পথিমধ্যে ওৎ পেতে থাকা মুন্নার লোকজন তাকে এলোপাতারী মারপিট করলে তিনি গুরুতর অসুস্থ হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করান।  

এ নিয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ এসএম আব্দুল সোবাহান জানান, মোখলেছুর রহমান বাদি হয়ে মুন্নাসহ ৬জনকে আসামী করে থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন।

পাঠকের মন্তব্য