টঙ্গীতে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন ঘাতক স্বামী আটক

টঙ্গীতে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন ঘাতক স্বামী আটক

টঙ্গীতে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন ঘাতক স্বামী আটক

টঙ্গীতে গতকাল রোববার রাত দুইটার দিকে যৌতুকের টাকা না দেয়ায় স্বামীর হাতে সাজেদা বেগম (২৯) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে টঙ্গী পূর্ব থানা মেঘনা রোড এলাকায় একটি বস্তিতে। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশটি উদ্ধার করে গাজীপুর মর্গে প্রেরণ করেন। নিহত সাজেদা তিন সন্তানের জননী। পুলিশ খুনের অভিযোগে স্বামী মো.রুবেল মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে।

টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশের উপ-পুলিশ পরিদর্শক মানিক মাহমুদ বলেন, গত কয়েক বছর আগে রুবেল ও সাজেদা বিয়ে হয়। তাঁরা টঙ্গীর মেঘনা রোড বস্তিতে থাকতেন। যৌতুকের টাকা না দেওয়ার জের ধরে শনিবার স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে স্বামী রুবেল স্ত্রী সাজেদাকে বাঁলিশ চাপা দিয়ে শ্বাস রোধে হত্যা করে। পরে ঘটনাটি আতœহত্যা বলে চালিয়ে দিতে চেষ্টা চালায় স্বামী রুবেল।

এদিকে নিহতের পিতা ফরিদ মিয়া জানান, যৌতুকের টাকা না দিতে পারায় আমার মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে। আমার মেয়ে ভাঙ্গাড়ির দোকানে কাজ করে সংসার চালাতো। বর্তমানে সাজেদার দেড় মাসের বাচ্চা নিয়ে কাজ করতে পারে না। কিন্তু রুবেল প্রায় সময় সাজেদাকে নেশার টাকার জোগারের জন্য প্রায় সময় ঘরে ঝগড়া বিবাদ করতো। ঘাতক স্বামী রুবেল নরসিংদি জেলার ঘোড়াশাল থানার মো.শাহী মিয়ার ছেলে।

টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.কামাল হোসেন ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য