ঝিনাইদহে দালাল দিয়ে পরিচালিত হয় বিআরটিএ’র রেকর্ড রুম 

ঝিনাইদহ দালাল দিয়ে পরিচালিত হয় বিআরটিএ’র রেকর্ড রুম 

ঝিনাইদহ দালাল দিয়ে পরিচালিত হয় বিআরটিএ’র রেকর্ড রুম 

ঝিনাইদহ বিআরটিএ’র অফিস দালাল দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। সহকারি পরিচালক বিলাস সরকারের মৃত্যুর পরে গত ১৬ই সেপ্টেম্বর নতুন যোগদান করেন এস এম মাহফুজুর রহমান। তিনি যোগদানের পরে ঘুষ দূর্নীতির মাত্রা বেড়ে দ্বিগুন পরিমানে। অফিস পরিচালিত হচ্ছে দালাল দিয়ে। অফিস সূত্রে জানা যায় মোট সাতজন ষ্টাফ এখানে নিয়মিত কাজ করেন তারা হলেন ফরহাদ উদ্দীন, মাইদুল হাসান, সাহাবুদ্দীন, রবিউল ইসলাম, জাহিদুল হাসান, মফিজ, শহিদুল ইসলাম,বাবুল আক্তার।

সরজমিনে বিআরটিএ’র অফিসে গিয়ে জন, মুক্তার, আনোয়ার, সামিউল, মুন্নু, ফারুক এবং নাম না জানা আরও কয়েক কয়েকজন দালালকে দেখা যায়, যারা কেউ অফিসের স্টাফ নাই। বিভিন্ন রুমে কাজ করতে দেখা যায় এদেরকে, তারা কে কোন পোষ্টে আছে প্রশ্ন করলে বলে আমরা সবাই স্যারের লোক।

ঘুষ নেওয়ার অভিযোগও রয়েছে এই অফিসের বিরুদ্ধে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক গ্রাহক বলেন গাড়ির রুটপার্মিট নেওয়ার জন্য গেলে ফিল্ড ম্যাকানিক্্রস বাবুল আক্তার ও দালাল আনোয়ার মিলে তার নিকট থেকে ঘুষ দাবি করেন। এছাড়া আরও অনেকের কাছ থেকে জানা যায় ঘুষ ছাড়া কোন কাজ হয়না এই অফিসে। ঝিনাইদহবাসী বিআরটিএ’র বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়েছেন।

পাঠকের মন্তব্য