শিশু তুহিন হত্যা: রিমান্ড শেষে বাবার জবানবন্দি

শিশু তুহিন হত্যা: রিমান্ড শেষে বাবার জবানবন্দি

শিশু তুহিন হত্যা: রিমান্ড শেষে বাবার জবানবন্দি

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে পাঁচ বছরের শিশু তুহিন মিয়া হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তার বাবা আব্দুল বাসির আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।

শুক্রবার বিকলে ৫টায় জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. খালেদ মিয়ার আদালতে তিনি এ জবানবন্দি দেন। আবদুল বাছিরের সঙ্গে তার দুই ভাই আবদুল মছব্বির ও জমসেদ আলীও রিমান্ডে ছিলেন। তবে তারা জবানবন্দি দেননি। পরে তিনজনকেই আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

পুলিশ জানায়, এই তিনজনকে গত মঙ্গলবার রিমান্ডে নেয় পুলিশ। রিমান্ড চলাকালে তাদের হত্যাকাণ্ডের নানা বিষয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে কিছু তথ্য দেয় তারা পুলিশকে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দিরাই থানার এসআই আবু তাহের মোল্লা বলেন, রিমান্ড শেষে শুক্রবার আসামিদের আদালত হাজির করা হয়েছিল, আদালত তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন।

তিনি আরও জানান, আবদুল বাছির আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। তবে আদালতে তিনি কী বলেছেন সেটি আমরা জানি না। পরে তিনজনকেই কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আগে এ ঘটনায় সঙ্গে জড়িত থাকার দায় স্বীকার করে তুহিনের চাচা নাসির উদ্দিন ও চাচাতো ভাই শাহরিয়ার আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছিল। 

এদিকে শুক্রবার বিকেলে ঘটনাস্থল দিরাইয়ের কেজাউরা গ্রামে যান সিলেট বিভাগের পুলিশের ডিআইজি কামরুল আহসান। নিহতের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন।

এ সময় সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ঘটনাটা যাতে ভালো ভাবে তদন্ত হয়, কোন রকম ত্রুটি বিচ্যুতি না থাকে, সেই সতর্কতা বজায় রেখে তদন্ত হচ্ছে। এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না কত দিন লাগবে তদন্ত করতে, তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে চেষ্টা করা হবে। ইতিমধ্যে আসামি গ্রেপ্তার হয়েছে, স্বীকারোক্তি দিয়েছে দুজন।

পাঠকের মন্তব্য