সোনারগাঁয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে পানির ট্যাঙ্কে বিষ মিশানোর অভিযোগ

সোনারগাঁয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে পানির ট্যাঙ্কে বিষ মিশানোর অভিযোগ

সোনারগাঁয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে পানির ট্যাঙ্কে বিষ মিশানোর অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা পেচাইন এলাকায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে হত্যার উদ্দেশ্যে পানি ট্যাঙ্কে বিষ মিশানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের পেচাইন এলাকার সাগরিকা ওরফে খাদিজা তার পৈত্রিক সূত্রে কতক সম্পত্তির মালিক হইয়া ভোগ দখলে নিয়ত আছে। 

কিছুদিন যাবত তার ভোগ দখলীয় সম্পত্তি অবৈধ ভাবে দখলের উদ্দেশ্যে একই এলাকার মান্নান মিয়ার ছেলে আব্দুল কাদির ও বাবুল মিয়া, আব্দুল কাদির এর ছেলে সজিব মিয়া ও আল আমিন, মানিক মিয়ার ছেলে রুবেল মিয়া, সুমন মিয়া ও সুজন মিয়াগণ। গত ১৯ অক্টোবর জমির মালিক খাদিজা তার ভোগ দখলীয় জমিতে কাজ করতে গেলে উল্লেখিত বিবাদীগণ তার কাজ কর্মে বাধা প্রদান সহ হত্যার হুমকি প্রদান করে। এতে খাদিজা ও তার লোকজন প্রতিবাদ করতে গেলে বিবাদীগণ খাদিজা ও তার পরিবারের সদস্যদের উপর হামলা চালিয়ে পিটিয়ে আহত করে। বিষয়টি খাদিজা আক্তার এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের অবহিত করে স্হানীয় হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করে। 

কিন্তু ২০ অক্টোবর সকালে খাদিজা আক্তার ফজর নামাজের পূর্বে ওজু করতে গেলে দেখতে পায় পানি মধ্যে বিষ মিশানো। ধারনা করা হচ্ছ জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে বিবাদীগণ রাতের আধারে খাদিজা আক্তারের বাড়ির পানির ট্যাঙ্কে বিষ মিশিয়ে দেয়। এ বিষয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। খাদিজা আক্তার জানায়, আমাদের জমি অবৈধ ভাবে দখল করার উদ্দেশ্যেই বিবাদীগণ সকল প্রকার অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। আমি এর ন্যায় বিচার চাই। অপর দিকে আব্দুল কাদির এর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্ঠা করলে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।এ বিষয়ে  সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনার বিষয়ে অবহিত হয়েছি। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্হা গ্রহণ করা হবে।

পাঠকের মন্তব্য