গৌরনদীতে সরকারি সম্পত্তিতে পাঁকা দোকান ঘর নির্মান

গৌরনদীতে সরকারি সম্পত্তিতে পাঁকা দোকান ঘর নির্মান

গৌরনদীতে সরকারি সম্পত্তিতে পাঁকা দোকান ঘর নির্মান

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাকাই বাজারে আদালত ও থানা পুলিশের নির্দেশ অমান্য করে শনিবার ভোর রাতে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে এক প্রভাবশালী ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে সরকারি সম্পত্তিতে পাঁকা দোকান ঘর নির্মান করেছে। নির্মান কাজে বাঁধা দেয়ায় স্থানীয় ব্যবসায়ী মোঃ সহিদ ফকির ও তার সহদোর এচমাইল ফকিরকে লাঞ্চিত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

সরেজমিনে ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসির সাথে কথা বলে জানা গেছে, উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের পূর্ব বাকাই মৌজার এসএ দাগ নং ৫২/৫৩, যার বিএস ৬১ দাগের ২৪ শতক জমির কিছু অংশ দিয়ে বাকাই হাটে জনসাধারনের যাতায়াতের জন্য স্থানীয় সরকার  বিভাগ থেকে রাস্তা নির্মান করে। অবশিষ্ট ২২ শতক সম্পত্তির মালিক মেদাকুল গ্রামের মৃত আছমত আলী ফকিরের পুত্র মোঃ সহিদ ফকির। উক্ত সম্পত্তির উপর মার্কেট নির্মান করে সহিদ বিভিন্ন ব্যক্তির নিকট ভাড়া প্রদান করেছেন। 

মোঃ সহিদ ফকির অভিযোগ করেন তার মার্কেটের সম্মুখে সড়কের পাশে সরকারি ও তার মালিকানাধীন সম্পত্তিতে পার্ম্ববর্তী কালকিনি উপজেলার ডাসার থানার মাইচপাড়া গ্রামের হামেদ বকশি’র পুত্র প্রভাবশালী মোঃ হালিম বকশি গত ১০ অক্টোবর পাঁকা দোকান ঘর নির্মান শুরু করেন। পরবর্তীতে গত ১৩ অক্টোবর বরিশাল অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মোঃ সহিদ ফকির স্থাপনা নির্মান বন্ধসহ ১৪৪/১৪৫ জারীর আবেদন করেন। আদালতের বিচারক তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদনের জন্য গৌরনদী সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) আদেশ দেন। আদেশ প্রাপ্তি হয়ে সহকারী কমিশনার ও গৌরনদী মডেল থানা ১৪ অক্টোবর হালিম বকশি ও সহিদ ফকিরকে আদালতের মাধ্যমে বিরোধ নিম্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত স্ব-স্ব অবস্থানে থাকার নোটিশ প্রদান করেন।
 
স্থানীয় ব্যবাসীরা অভিযোগ করেন, নোটিশ অমান্য করে শনিবার ভোর রাত ৪টার দিকে হালিম বকশি ৫০ থেকে ৬০ জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে অবৈধ ভাবে পাঁকা দোকান ঘর নির্মান করে। এ সময় ব্যবসায়ী মোঃ সহিদ ফকির ও তার সহদোর এচমাইল ফকির বাঁধা দিলে তাদের অকথ্য ভাষায় গালগাল করে লাঞ্চিতসহ জীবন নাশের হুমকি দেয়। হুমকির মুখে তারা স্থান ত্যাক করেন। 

দেশীয় অস্ত্র সজ্জিত হওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে মোঃ হালিম বকশি বলেন, বাজার কমিটির মৌখিক অনুমতি সাপেক্ষে পাঁকা ভবন নির্মান করা হয়েছে। 

পাঠকের মন্তব্য