পুলিশ সুপারের ফেসবুক হ্যাক, ছড়াল বিতর্কিত ধর্মীয় পোস্ট

পুলিশ সুপারের ফেসবুক হ্যাক, ছড়াল বিতর্কিত ধর্মীয় পোস্ট

পুলিশ সুপারের ফেসবুক হ্যাক, ছড়াল বিতর্কিত ধর্মীয় পোস্ট

সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্রমশই বাড়ছে হ্যাকারদের আনাগোনা। সেই হ্যাকারদের খপ্পরে পড়লেন দেশের ভোলার পুলিশ সুপার সরকার মহম্মদ কায়সার। হ্যাক করা হল তাঁরে ফেসবুক প্রোফাইল। বুধবার সকালে ভোলা জেলা পুলিশের পেজে সেকথা জানানো হয়েছে।

সম্প্রতি হজরত মহম্মদ (সাঃ)কে নিয়ে বিতর্কিত ফেসবুক পোস্টের জেরে উত্তাল হয়ে ওঠে বাংলাদেশ। ভোলা উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা বিপ্লব নামে এক যুবক হজরত মহম্মদ ও ইসলামকে কটূক্তি করে ফেসবুকে একটি পোস্ট করে। বিষয়টি কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে ওই যুবক-সহ দুজনকে আটক করে পুলিশ। এদিকে এই পোস্টের প্রতিবাদে রবিবার বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দেয় স্থানীয় মুসলিমরা। 

বোরহানউদ্দিন মাধ্যমিক বিদ্যালয় এলাকায় একটি বিক্ষোভ সমাবেশ করতে চায়। কিন্তু, এতে বাধা দেয় পুলিশ। এরপরই উভয়পক্ষের খণ্ডযুদ্ধ শুরু হয়। এর জেরে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে জখম হয়েছেন আরও শতাধিক। পরিস্থিতি মোকাবিলায় ওই এলাকায় ৪ কোম্পানি বিজিবি জওয়ান মোতায়েন করা হয়। এর মধ্যে একদলকে হেলিকপ্টারে করে জরুরি ভিত্তিতে ভোলায় পাঠানো হয়। বাকি তিনটি দল যায় সড়কপথে। 

বুধবার সকালে র‌্যাব ৮-এর ভোলা ক্যাম্প বিধান মজুমদার ও তাঁর দোকানের কর্মচারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। সূত্রের খবর, বিপ্লবচন্দ্র শুভর বিষয়ে জানতেই তাদের দুজনকে গোপনে নিয়ে আসা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের পরই তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়। র‌্যাব সূত্রে খবর, বিধান ও সাগরকে বিভিন্ন বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয় তাদের। তবে তাদের অপহরণ করা হয়নি বলেই দাবি পুলিশের। অন্যদিকে, পরিবেশ শান্ত রাখতে গত রাতে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এক সমন্বয় বৈঠকও অনুষ্ঠিত হয়। তাতে প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের পাশাপাশি রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মন্তব্য