অবশেষে সংকটের অবসান, মাঠে ফিরছেন ক্রিকেটাররা

অবশেষে সংকটের অবসান, মাঠে ফিরছেন ক্রিকেটাররা

অবশেষে সংকটের অবসান, মাঠে ফিরছেন ক্রিকেটাররা

গত সোমবার হঠাৎই উত্তপ্ত হয়ে ওঠা বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গন অবশেষে দেখা মিলেছে আলোর। কারণ ক্রিকেটারদের উত্থাপিত সব দাবি মেনে নিয়েছে ক্রিকেট বোর্ড। অবশেষে রাত ৯টার পর আন্দোলনরত ক্রিকেটারদের সঙ্গে মিরপুরে বিসিবি কার্যালয়ে বৈঠকে বসে সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনসহ বিসিবি কর্মকর্তারা। সেখানেই সব দাবি মেনে নেয় বোর্ড।

এরপরই সংবাদ সম্মেলনে এসে আন্দোলনরত ক্রিকেটারদের দাবি মেনে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ক্রিকেটাররাও ঘোষণা দিয়েছেন, যথারীতি তারা স্বাভাবিক ক্রিকেট কার্যক্রমে ফিরে আসবেন।

এর আগে ১১ দফা দাবিতে আন্দোলনরত ক্রিকেটারদের সঙ্গে সমস্যা সমাধানে বুধবার (২৩ অক্টোবর) বিকেল ৫টায় বিসিবি কার্যালয়ে বসার কথা ছিলো বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তাদের। এ নিয়ে দু’দফা তারা সাংবাদিকদের জানান, ক্রিকেটারদের অপেক্ষায় রয়েছেন। তবে বিসিবিতে বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে বসিয়ে রেখে হঠাৎ করেই গুলশানে সংবাদ সম্মেলনের ডাক দেন আন্দোলনরত ক্রিকেটাররা।

এরও আগে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বিসিবি সভাপতি পুরো পরিস্থিতি বর্ণনা করেন। এ সময় বিসিবি সভাপতির সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সাবেক অধিনায়ক, বর্তমানে বিসিবি পরিচালক এবং ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (কোয়াব) সভাপতি নাঈমুর রহমান দুর্জন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বিকেল ৩টায় গণভবন থেকে বের হয়ে আসেন বিসিবি সভাপতি। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা খেলোয়াড়দের সব দাবি-দাওয়া মেনে নেওয়ার জন্য প্রস্তুত আছি।’

বিসিবি কর্মকর্তা এবং ক্রিকেটার বৈঠকের পর যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এবং আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী, টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিসিবির উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং আন্দোলনকারী ক্রিকেটারদের অনেকেই।

ক্রিকেটারদের হয়ে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন সাকিব আল হাসান। তিনি জানিয়েছেন, বিসিবি তাদের দাবি মেনে নেয়ার কারণে শনিবার থেকে যথারীতি এনসিএল খেলবেন তারা এবং ২৫ অক্টোবর, তথা শুক্রবার থেকে ভারত সফর উপলক্ষে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ফিরে আসবেন।

গত সোমবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ক্রিকেট ব্যবস্থাপনার প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করে ১১ দফা দাবি জানিয়েছেন ক্রিকেটাররা। আর এসব দাবি না মানা পর্যন্ত সবধরনের ক্রিকেট থেকে বিরতিতে থাকবেন জাতীয় দল ও জাতীয় দলের বাইরে থাকা সকল ক্রিকেটাররা।

ক্রিকেটারদের দাবির মধ্যে ছিল কোয়াবের বর্তমান কমিটির পদত্যাগ, খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিক বাড়ানো, স্থানীয় কোচদের প্রাধান্য দেওয়া, জাতীয় লিগের ম্যাচ ফি বাড়ানো, ভ্রমণভাতা বাড়ানো, বিভাগীয় পর্যায়ে অনুশীলনের সুযোগ বাড়ানো, আন্তর্জাতিক মানের বল দিয়ে স্থানীয় ম্যাচ আয়োজন, প্রথম ও দ্বিতীয় বিভাগ লিগের দুর্নীতি বন্ধ করার মতো বিষয়গুলো।

ক্রিকেটারদের দাবির প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) এক প্রেস ব্রিফিংয়ে হাজির হয়ে বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন দাবি করেন, ক্রিকেটারদের দাবিগুলো ‘অযৌক্তিক’। শুধু তাই না, তার মতে এসব করা হচ্ছে দেশের ক্রিকেটকে ধ্বংস করার উদ্দেশ্যে।

পাঠকের মন্তব্য