সাকিবের বিরুদ্ধে লিগ্যাল অ্যাকশন নয়, ব্যাখ্যা চাইবে বিসিবি 

সাকিবের বিরুদ্ধে লিগ্যাল অ্যাকশন নয়, ব্যাখ্যা চাইবে বিসিবি 

সাকিবের বিরুদ্ধে লিগ্যাল অ্যাকশন নয়, ব্যাখ্যা চাইবে বিসিবি 

ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের অবসান হওয়ার পর আলোচনায় সাকিব আল হাসানের চুক্তি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অনুমতি ছাড়া গ্রামীণফোনের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হয়েছেন সাকিব। নিয়ম অনুযায়ী তিনি সেটি পারেন না দাবি করে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। সম্প্রতি একটি গণমাধ্যমে দেয়া বোর্ড সভাপতির সাক্ষাৎকারের পর এ নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে। তিনি সেখানে, সাকিবের বিরুদ্ধে লিগ্যাল অ্যাকশনে যাওয়ার কথা বলেছিলেন। কিন্তু ঘটনা আদতে তা না। বরং নিয়মতান্ত্রিকভাবে সাকিবের ব্যাখ্যা জানতে চাইবে তারা।

পরে বোর্ড সভাপতি জানান, সাকিবের বক্তব্য জানতে চাইবে বিসিবি। তিনি মূলত, কারণ দর্শানো নোটিশই বুঝাতে চেয়েছেন। এটি আরও স্পষ্ট হয় বিসিবির সিইও নিজামুদ্দিন চৌধুরীর কথায়। তিনি বলেছেন, ক্রিকেটারদের সঙ্গে বোর্ডের চুক্তি আছে। সে চুক্তির শর্তানুযায়ী ও এমন চুক্তি হতে পারে না। আমরা তাকে চিঠি দিচ্ছি। আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ এটি। কেনো সে এটা করল, তাকে বলতে হবে।

এটি পুরোপুরি বোর্ডের ‘অভ্যন্তরীণ বিষয়’ হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি। মনে করেন না, আইনি প্রক্রিয়ায় যাওয়ার কোনো প্রয়োজন আছে।

এর আগে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা, সাব্বির রহমানরা বিসিবির আপত্তির কারণে চুক্তি বাতিল করতে বাধ্য হয়েছিলেন। প্রসঙ্গত, গত ২২ অক্টোবর সাকিব আল হাসান গ্রামীণফোনের ব্র্যান্ড অ্যাম্বেসেডর হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হন।

পাঠকের মন্তব্য