পটুয়াখালীতে প্রধান আসামীসহ দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার 

পটুয়াখালীতে প্রধান আসামীসহ দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার 

পটুয়াখালীতে প্রধান আসামীসহ দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার 

মোঃ মেহেদী হাসান (বাচ্চু) পটুয়াখালী : র‌্যাব-৮, সিপিসি-১, পটুয়াখালী ক্যাম্প এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল সিনিঃ এএসপি সোয়েব আহমেদ খান এর নেতৃত্বে ৩০ অক্টোবর বিকাল ৪ টার সময় পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া থানাধীন কল্যাণপুর বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পটুয়াখালী কলাপাড়া থানার মামলা নং- ৩২, তারিখঃ ২৯-১০-২০১৯ইং, ধারা- নারী ও শিশু নির্যাতন আইন ২০০০(সংশোধনী ২০০৩) এর ৯(ক)/৩০ এর এজাহারনামীয় ১নং পলাতক আসামী মোঃ সুমন (২০), পিতাঃ সেলিম মেকার, এবং ৩নং পলাতক আসামী মোঃ জহির(৪০), পিতাঃ ছত্তার মেকার, উভয় সাং রহমতপুর, মাঝগ্রাম, ৩নং ওয়ার্ড, কলাপাড়া পৌরসভা, থানা- কলাপাড়া, জেলা- পটুয়াখালীকে আটক করে। 

উল্লেখ্য যে, খেপুপাড়া মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী ভিকটিম হৈমন্তী শুকলা হাওলাদার (১৫) কে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে মুসলিম পরিবারের ছেলে মোঃ সুমন (২০), পিতাঃ সেলিম মেকার, সাং রহমতপুর, মাঝগ্রাম, ৩নং ওয়ার্ড, কলাপাড়া পৌরসভা, থানা- কলাপাড়া, জেলা- পটুয়াখালী প্রেম নিবেদন ও কু-প্রস্তাবসহ বিভিন্ন সময় উত্যক্ত করত। 

ভিকটিম, তার পিতা সুনিল চন্দ্র হাওলাদারকে বিষয়টি জানালে, সুনিল চন্দ্র হাওলাদার আসামী সুমন এর চাচা মোঃ জহিরকে ঘটনাটি অবগত করেন। জহির উক্ত বিষয়টি গুরুত্ব না দিয়ে উল্টো বলে আজ কাল ছেলে মেয়েরা প্রেম টেম করে থাকে, এতে কিছু হয়না। পরবর্তীতে জহির এর উস্কানিতে আসামী সুমন আরও বেপরোয়া হয়ে গত ২৬-১০-২০১৯ তারিখ ভিকটিম হৈমন্তী শুকলা হাওলাদার(১৫), স্কুলে যাওয়ার পথে আসামী সুমন ভিকটিম এর ইচ্ছার বিরুদ্ধে হাত ধরে শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে স্পর্শ করে এবং ভিকটিমের পিতাকে হত্যার হুমকি প্রদান করে। উক্ত ঘটনায় ভিকটিম অপমানিত হয়ে লোক লজ্জার ভয়ে আতœহত্যায় প্ররোচিত হয়ে গলায় ফাঁস দেয়। আটককৃত আসামীদের পটুয়াখালী কলাপাড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়।

পাঠকের মন্তব্য