জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে খোকা, আশা ছেড়েছেন চিকিৎসকরা

জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে খোকা, আশা ছেড়েছেন চিকিৎসকরা

জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে খোকা, আশা ছেড়েছেন চিকিৎসকরা

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরের ম্যানহাটনের মেমোরিয়াল স্লোন ক্যাটারিং ক্যান্সার সেন্টারে চিকিৎসাধীন খোকার শারীরিক অবস্থা পরিবর্তনের আশা ছেড়ে দিয়েছেন চিকিৎসকেরা। সব ধরনের চিকিৎসা ইতোমধ্যে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

বিএনপির এই নেতার শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী এই মুহূর্তে তাকে দেশে ফিরিয়ে আনাও পরিবারের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। পাসপোর্ট না থাকায় দেশে ফিরতে পারেননি তিনি। পরবর্তী সময়ে কী হবে, এ নিয়ে স্বজনরা বিভ্রান্তিতে আছেন। ভ্রমণ ভিসার নিয়ম অনুযায়ী, ছয় মাস পর পর যাওয়া-আসা করে আমেরিকার ভিসা বৈধ রাখার নিয়ম। ২০১৭ সালে খোকা ও খোকার স্ত্রী ইসমত হোসেনের পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। তারা নিউইয়র্ক কনস্যুলেটে নতুন পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেন। পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নতুন পাসপোর্ট পাওয়ার ব্যাপারে কনস্যুলেট থেকে কোনো সদুত্তর দেওয়া হয়নি।

২০১৪ সালের ১৪ মে সপরিবারে ক্যান্সারের চিকিৎসার জন্য নিউইয়র্ক আসেন খোকা। এরপর থেকে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী নিউইয়র্ক শহরের কুইন্সে থাকছেন তিনি।

হাসপাতালে খোকার পাশে আগে থেকেই আছেন তার স্ত্রী ইসমত হোসেন, মেয়ে সারিকা সাদেক, ছেলে ইশফাক হোসেন। বাবার সংকটাপন্ন অবস্থার খবর পেয়ে ঢাকা থেকে তার বড় ছেলে ইশরাক হোসেনও নিউইয়র্কে ছুটে এসেছেন।

ঘনিষ্ঠ এক সুত্রে জানা গেছে, সাদেক হোসেন খোকার পুরো ফুসফুসে ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়েছে। অক্সিজেন দিয়ে তাকে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য