টাইগারদের ভারত মিশন শুরু হচ্ছে আজ

টাইগারদের ভারত মিশন শুরু হচ্ছে আজ

টাইগারদের ভারত মিশন শুরু হচ্ছে আজ

দিল্লিতে টি-টিয়োন্টি ম্যাচ দিয়ে টাইগারদের ভারত মিশন শুরু হচ্ছে আজ। এ সফরে তিনটি টি-টোয়েন্টি ও দুটি টেস্টে ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

এ সফরের মধ্যদিয়ে প্রথমবারের মত ভারতের মাটিতে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলবে মাহমুদুল্লাহরা। সংক্ষিপ্ত পরিসরের এ খেলায় রোহিতদের সঙ্গে অতীতের স্মৃতিটা তেমন উল্লেখ করার মত নয় টাইগারদের জন্য। ৮ বারের দেখায় সবকটাতে হেরেছে মুশফিকরা। এর মধ্যে কয়েকবার জয়ের বন্দরে গিয়েও শেষ পর্যন্ত ফসল মাঠে তুলতে পারেনি বাংলাদেশি যুবরা। তবুও, নিজেদের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে জয়ের আশায় মাঠে নামবে টাইগাররা।

আজ রোববার (৩ নভেম্বর) দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায়।

এ ম্যাচটি উভয় দলের জন্য অন্যরকম মাইলফলকে পৌঁছে দেবে বিধায় ম্যাচটির গুরুত্ব অনেক বেশি। ২০০৫ সালে ক্রিকেটের এ ক্ষুদ্র পরিসরের খেলা চালু হওয়ার পর বাংলাদেশ-ভারতের এ ম্যাচটি টি-টোয়েন্টির ১০০০ তম ম্যাচ। ফলে ম্যাচটিকে স্মরণীয় করে রাখতে মরিয়া উভয় দল।

বিশেষ করে টাইগারদের জন্য ম্যাচটি অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ক্রিকেট বোদ্ধারাও তাই বলছেন, বাংলাদেশের জন্য ‘প্রাণ’ বাচানোর ম্যাচ হতে পারে এটি। কেননা,  সিরিজটির ওপর অনেক কিছু নির্ভর করছে। এ সিরিজে হেরে গেলে শ্রীলংকার মতো সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ম্যাচ হারের লজ্জায় পড়বে টাইগাররা।

গত শুক্রবার (১ নভেম্বর) অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে স্বাগতিকদের বিপক্ষে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে যায় সফরকারী শ্রীলংকা। তিন ম্যাচ সিরিজে অজিদের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার মধ্য দিয়ে সবচেয়ে বেশি ৬১ ম্যাচ হেরে বাংলাদেশকে (৫৮) লজ্জার রেকর্ড থেকে মুক্তি দেয় শ্রীলংকা।

গুরুত্বপূর্ণ এ ম্যাচে দলে নেই সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছেন তিনি। অপরদিকে, আরেক নির্ভরতার প্রতীক তামিম ইকবালও নেই দলে। সাকিবের জায়গায় মাহমুদুল্লাহ দলের নেতৃত্ব দিবে।

ফলে, টাইগারদের এ সফরে দুই দায়িত্বশীল ব্যাটসম্যান মুশফিক ও মাহমুদুল্লাহর জন্য এ সিরিজটি বেশ কঠিন পরীক্ষাই বলা চলে।

অন্যদিকে, বিশ্রামে গেছেন ভারতের নিয়মিত দলপতি বিরাট কোহলি। তার জায়গায় ভারতকে নেতৃত্ব দিবেন রোহিত শর্মা।

এদিকে, দিল্লির দূষিত বায়ুতে অনুশীলন করতে সমস্যার সৃষ্টি হলেও, তা বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি টাইগারদের সামনে। স্কোয়াড থেকে ছিটকে গেছেন সাইফুদ্দিন। ফলে, মোস্তাফিজের ওপর প্রত্যাশাটা একটু বেশিই। টাইগার প্রেমিদের আশা পূর্ণরুপে জ্বলে উঠবেন তিনি।

আর দীর্ঘদিন পর সুযোগ পেয়ে নিজেদের প্রমাণ করতে চাইবেন স্পিনার আরাফাত সানি আর পেসার আল আমিন।  ঠিক তিন বছর আগে এই ভারতে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলার পর থেকেই জাতীয় দলের বাইরে ছিলেন এই দুই টাইগার বোলার।

এর আগে বারবার জয়ের বন্দরে এসে তীরে তরি ডুবেছে টাইগারদের। এবার আর সে ভুল করতে চান না তারা। তাইতো বাংলাদেশি ক্রিকেট ভক্তদের প্রত্যাশা এক হাজারতম ম্যাচটি হোক বাংলাদেশের জন্য নতুন মাইলফলকের।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ : লিটন কুমার দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ নাঈম/মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আফিফ হোসেন ধ্রুব, আরাফাত সানি, মোস্তাফিজুর রহমান, আল-আমিন হোসেন ও আবু হায়দার রনি/তাইজুল ইসলাম।

ভারতের সম্ভাব্য একাদশ : রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, সঞ্জু স্যামসন/লোকেশ রাহুল, শ্রেয়ার্স ইয়ার, রিশব পন্ত, শিভাম দুবে, ক্রুনাল পান্ডিয়া, ওয়াশিংটন সুন্দর, যুভেন্দ্র চাহাল/রাহুল চাহার, দীপক চাহার, শার্দুল ঠাকুর/খলিল আহমেদ।         

পাঠকের মন্তব্য