চন্দনাইশ উপজেলায় কামিল মাদরাসা স্থাপনের দাবী

চন্দনাইশ উপজেলায় কামিল মাদরাসা স্থাপনের দাবী

চন্দনাইশ উপজেলায় কামিল মাদরাসা স্থাপনের দাবী

চন্দনাইশ বাংলাদেশের চট্টগ্রাম জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা। এই চন্দনাইশ ছিল পটিয়া উপজেলার একটি অংশ। ১৯৭৬ সালে পটিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন করে চন্দনাইশ থানার সৃষ্টি করা হয়। ১৯৮৩ সালের ২ জুলাই চন্দনাইশ থানাকে উপজেলায় উন্নীত করা হয়। কথিত আছে চন্দন ও আঁশ হতে চন্দনাইশ নামের উদ্ভব। এলাকাটি একসময় চন্দন গাছের উৎপাদন ও ব্যবসার জন্য বিখ্যাত ছিলো। বার আউলিয়া স্মৃতি বিজড়িত এই উপজেলা বিখ্যাত আলেম ওলামা   ও বেশ কিছু জাতীয় ব্যক্তিত্বের জন্য সুপরিচিত। বাংলাদেশের ইতিহাসে বিভিন্ন সময়ে নানান ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখার মত আলেম-ওলামা ও পীর-মাশায়েখ সহ বহু গুণীজন উপহার দিয়েছে চন্দনাইশ।  

অত্র এলাকার আলেমগণ অনেক আন্দোলন ও সংগ্রামের রূপকার এবং পুরোধা ছিলেন। এবং শিক্ষা বিস্তারের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ড ও জনকল্যাণ মূলক কাজে অগ্রণী ভূমিকা রাখেন। এমন কি তাদের মধ্যে অনেকেই উপমহাদেশ সহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে সুনাম ও সুপ্রসিদ্ধ লাভ করেছেন। উল্লেখ্য দক্ষিণ চট্টগ্রামের এই চন্দনাইশ উপজেলায় অসংখ্য দাখিল,আলিম ও ফাজিল মাদরাসা (ডিগ্রী) থাকলেও একটিও কামিল মাদরাসা নেই। বর্তমান সময়ে এই উপজেলায় একটি কামিল মাদরাসা স্থাপন সময়ের দাবীতে পরিণত হয়েছে।  তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এই চন্দনাইশ উপজেলায় কামিল মাদরাসা স্থাপনের জোর দাবী জানাচ্ছি।

লেখক : মোহাম্মদ ইমাদ উদ্দীন
প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক, চন্দনাইশ মুসলিম সাহিত্য সমাজ। চন্দনাইশ, চট্টগ্রাম। 

পাঠকের মন্তব্য