সোনারগাঁয়ে ঘুড়ি খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত ১০

সোনারগাঁয়ে ঘুড়ি খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত ১০

সোনারগাঁয়ে ঘুড়ি খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত ১০

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ঘুড়ি খেলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়েছে। শনিবার বিকেলে পিরোজপুর ইউনিয়নের চান্দের চক এলাকায় উক্ত  ঘটনা ঘটে। আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। হামলায় পুরস্কার বিতরণের জন্য তৈরী প্যাণ্ডেল ভাংচুর করা হয়েছে।তাছাড়াও চেয়ার, টেবিল, সাউন্ড বক্স, মাইক ও ক্রেস্টসহ উপহার লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এ বিষয়ে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চান্দের চক গ্রামে ঘুড়ি খেলার আয়োজন করে স্থানীয় যুবকরা। উৎসব মুখর পরিবেশেই শুরু হয় খেলা। কিন্তু খেলার একপর্যায়ে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে  চান্দের চক গ্রামের তরুণদের সাথে নয়াগাঁও গ্রামের তরুণদের কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে নয়াগাঁও গ্রামের  ব্যবসায়ী হাজী আলাউদ্দিনের ছেলে হাজী ইয়ানবীর নেতৃত্বে লাঠিসোঠা, টেটা বল্লম, দা-ছুড়িসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে চান্দের চক গ্রামে হামলা চালায়। হামলায় ফারুক, জুলেখা, রুনা, নিলুফা, সিফাতসহ ১০ জন আহত হয়। আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা ছাড়াও অন্যান্য আহতদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে এলাকার লোকজন বিষয়টি মিমাংসার চেষ্টা করছেন বলে জানা যায়।    

পাঠকের মন্তব্য