কুড়িগ্রামে ডিসি শিকার সাংবাদিক আরিফের শয্যাপাশে বিএমএসএফ

কুড়িগ্রামে ডিসি শিকার সাংবাদিক আরিফের শয্যাপাশে বিএমএসএফ

কুড়িগ্রামে ডিসি শিকার সাংবাদিক আরিফের শয্যাপাশে বিএমএসএফ

কুড়িগ্রামের ডিসি কান্ডের শিকার সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম রিগানের শয্যাপাশে বিএমএসএফ কুড়িগ্রাম শাখা সভাপতি আবু জাফর সোহেল রানাসহ নেতৃবৃন্দ। 

কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালের ইমার্জেন্সী সার্জারী ইউনিটের ৩/৪ নং ওয়ার্ড এ অসুস্থ সাংবাদিক ও বাংলাদেশ ট্রিবিউন কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আরিফুল ইসলাম রিগ্যান চিকিৎসারত আছেন। গত ১৮ মার্চ বিকেল ৩.৩০ মিনিটে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম কুড়িগ্রাম জেলা সভাপতি ও মুভিবাংলা টিভির কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি প্রতিদিনবাংলারখবর এর উপদেষ্টা সংগঠক আবু জাফর সোহেল রানা সহ নেতৃবৃন্দ আরিফুল ইসলাম রিগ্যানের শারীরিক ও বর্তমান পরিস্থিতির খোজ খবর নেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন রেল নৌ স্থল যোগাযোগ গণকমিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, সংগঠক ও কলামিস্ট নাহিদ হাসান নলেজ। বিএমএসএফ জেলা সভাপতি রানা জানান, আরিফুলের নির্যাতন, ভ্রাম্যমান আদালত করে মিথ্যা মামলায় জেল জরিমানা, দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে  সুষ্ঠ তদন্ত ও এর সুষ্ঠ বিচার দাবীতে বিএমএসএফ সংগঠন কুড়িগ্রামসহ সারাদেশে ঘটনার পরপরই সোচ্চার ও প্রতিবাদ কর্মসুচী পালন করে এসেছে। কুড়িগ্রামের সকল সাংবাদিক নিজ নিজ অবস্থান থেকে নিজেদের ব্যানারেও প্রতিবাদ কর্মসুচী  ও মানববন্ধন পালন করায় সংগঠনের পক্ষ থেকে সকলকে ধন্যবাদ জানান।

বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর মুঠোফোনে নির্যাতিত সাংবাদিক আরিফুলের সাথে কথা বলেন। বাংলাদেশ ট্রিবিউন কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আরিফুল কেন্দ্রীয় নেতা আহমেদ আবু জাফর সহ বিএমএসএফ এর সারাদেশের সাংবাদিক সদস্যদের তার পাশে থেকে কাজ করার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। আইনি সহযোগিতা সহ এর বিচার না হওয়া পর্যন্ত বিএমএসএফ আরিফুলের সকল বিষয়ে পাশে থাকবে এমন কথা বিএমএসএফ জেলা নেতৃবৃন্দ নিশ্চিত করেছেন।

মুঠোফোনে কথা বলেন ঢাকাস্থ সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম মুক্তি পরিষদ এর আহবায়ক রাইয়ান কবীর রনো।ঢাকা জাতীয় প্রেসক্লাব এর সামনে বিএমএসএফ সহ একই কর্মসূচী প্রনয়নে কাজ করে আসছিলো। রনো মুঠোফোনে আরিফুলের খোজ খবর নেন। রনো প্রতিবেদককে বলেন, সাংবাদিক আরিফুলের ন্যায় বিচার ও দোষীদের বিরুদ্ধে কুড়িগ্রামে নিয়োগ বানিজ্য সহ আরও অনেক কমিশন নেয়ার অভিযোগ আসছে, যা নিয়ে আমরা কাজ করতে চাই। দূর্নীতির বিচার হলে তবেই কুড়িগ্রাম দূর্নীতিমুক্ত হবে। রাইয়ান কবীর রনো রেল নৌ স্থল যোগাযোগ গণ কমিটির কেন্দ্রীয় কার্যকরী সভাপতি। 

উল্লেখ্য, গত ১৩ মার্চ ২০২০ইং গভীর রাতে কুড়িগ্রাম জেলা ভ্রাম্যমান আদালতের নামে আরডিসি নাজিমুদ্দিনের নেতৃত্বে ৩ জন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সহ আনসার ভিডিপি সদস্যদের নিয়ে সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম রিগ্যানের বাড়ীর গেট দরজা ভেঙ্গে ফিল্মি স্টাইলে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে নিয়ে যায়। ডিসি অফিসে তাকে বিবস্ত্র করে অমানবিক নির্যাতন, ক্রসফায়ারের হুমকি ও অর্ধেক বোতল মদ, ১০০ গ্রাম পরিমানের বেশী গাজা রাখার অপরাধ এনে ভ্রাম্যমান আদালত করে ১ বছরের কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড করে জেল হাজতে প্রেরণ করার অভিযোগে স্থানীয় গণমাধ্যকর্মীসহ সারাদেশে সাংবাদিক সংগঠনগুলো এর প্রতিবাদ জানায়। বিএমএসএফ সাংবাদিকদের জাতীয় নেটওয়ার্ক হিসেবে আরিফুলের সাথে অন্যায় অবিচার নির্যাতন হওয়ার বিষয়টি সাংগঠনিকভাবে এর প্রতিবাদে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে কর্মসুচী প্রনয়ন ও বাস্তবায়ন করতে থাকে। এ কর্মসুচী এখনও চলমান ও অব্যাহত রয়েছে বলে বিএমএসএফ জেলা সভাপতি সোহেল রানা জানান।

সোহেল রানা প্রতিবেদক কে বলেন, আরিফুল ইসলাম সম্পুর্ন সুস্থ হয়নি। তার আরো চিকিৎসা সহ বিশ্রামের দরকার। ডান হাতের ফুলা ও শরীরের ব্যাথা আছে। বিচার পেতে আইনি কার্যক্রম নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি আগে তার সুস্থতা প্রয়োজন। আইনি পদক্ষেপ নিলে সবাই জানতে পারবেন বলে জানান। আরিফুল ইসলাম রিগান  তিনি প্রতিবেদকের মাধ্যমে  সকলের কাছে তার সুস্থতার জন্য দোয়া চেয়েছেন।

আজ কুড়িগ্রাম সদর থানায় সাংবাদিক আরিফুলের উপর নির্যাতন ও অন্যায়ভাবে ক্ষমতার অপব্যবহার করে ভ্রাম্যমান আদালত, জেল জরিমানা ও সংশ্লিষ্টদের প্রায় ৪০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানা গেছে। কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাব এর সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান বিপ্লব সাংবাদিক আরিফুলের হয়ে অভিযোগ দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

কুড়িগ্রাম সদর থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাহফুজার রহমান জানান, সাংবাদিক আরিফুলের লিখিত অভিযোগ এসেছে।এ বিষয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রম চলমান ও  উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা হচ্ছে বলে জানান।

পাঠকের মন্তব্য