গাইবান্ধার ৩ আসনের উপ-নির্বাচনের জন্য সকল প্রস্ততি সম্পন্ন 

গাইবান্ধার ৩ আসনের উপ-নির্বাচনের জন্য সকল প্রস্ততি সম্পন্ন 

গাইবান্ধার ৩ আসনের উপ-নির্বাচনের জন্য সকল প্রস্ততি সম্পন্ন 

গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর- পলাশবাড়ী) আসনের উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল শনিবার (২১ মার্চ)। কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম। শুক্রবার  (২০ মার্চ ) সকাল থেকে সাদুল্যাপুর ও পলাশবাড়ী উপজেলার সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে বিতরণ করা হয় ভোটগ্রহণের সরঞ্জাম। পরে এসব সরঞ্জাম নিয়ে ভোট গ্রহণকারী কর্মকর্তা এবং নিরাপত্তা সংশ্লিষ্টরা কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছান।

সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী দুই উপজেলার ২০টি ইউনিয়নের ১৩২টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। দুই উপজেলার ৪ লাখ ৩৫ হাজার ২১১ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

আওয়ামী লীগের দুইবারের সংসদ সদস্য ডা. ইউনুস আলী সরকারের মৃত্যুতে এ আসন শুন্য হয়। 

এ উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে অ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি, বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকে অধ্যাপক ডা. মইনুল হাসান সাদিক ও জাতীয় পার্টির লাঙল প্রতীকে মইনুর রাব্বী চৌধুরী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে প্রতিদ্বন্দ্বী অপর প্রার্থী জাসদের এসএম খাদেমুল ইসলাম খুদি নির্বাচন থেকে সড়ে নৌকা প্রতীকে সমর্থন জানিয়েছেন।

গাইবান্ধার পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম জানান, অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য ভোটগ্রহণের জন্য প্রিজাইডিং, পোলিং অফিসার, নির্বাচন সংশ্লিষ্ট প্রায় আড়াই হাজার কর্মকর্তা এবং প্রতিটি ভোটকেন্দ্রসহ প্রায় ৩ হাজার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবে। 

এছাড়া র‌্যাবের মোবাইল টিম, বিজিবি, সাদা পোশাকের গোয়েন্দা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের ভ্রাম্যমাণ আদালত ভোটের মাঠে তদরকি করবে।

গাইবান্ধা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো. মাহাবুবুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, উপনির্বাচনে সাদুল্যাপুর উপজেলার ৬৮টি ও পলাশবাড়ী উপজেলার ৬৪টি কেন্দ্রে সকাল ৯টা থেকে বিরতিহীন ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট দিয়ে নিরাপদে বাড়ি ফিরতে পারেন সেজন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এছাড়া করোনা প্রতিরোধে কেন্দ্রগুলোতে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য