সীমিত পরিসরে গাইবান্ধায় স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত

সীমিত পরিসরে গাইবান্ধায় স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত

সীমিত পরিসরে গাইবান্ধায় স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত

করোনা দুর্যোগের কারণে গাইবান্ধায় সংক্ষিপ্ত কর্মসূচীর মধ্যে দিয়ে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস ও ২৬ মার্চ স্বাধীনতা ও জাতীয়ে দিবস পালিত হয়। ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবসের কর্মসূচীর মধ্যে ছিল রাত ৯টা থেকে ৯টা ১ মিনিট পর্যন্ত গোটা জেলায় প্রতীকি ব্ল্যাক আউট। এছায়া আলোর মিছিল, আলোচনা সভা ও গণসংগীতের কর্মসূচী বাতিল করা হয়।

২৬ মার্চ স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে কুচকাওয়াজসহ সকল অনুষ্ঠান বাতিল করে সংক্ষিপ্ত কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করা হয়। এরমধ্যে ছিল প্রত্যুষে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে স্বাধীনতা দিবসের শুভ সূচনা, সূর্যোদয়ের পর সকল সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বেসরকারি ভবনে জাতী পতাকা উত্তোলন। সকাল সাড়ে ৮টায় সার্কিট হাউজ চত্বরে অত্যন্ত সীমিত পরিসরে শুধু রেকর্ডকৃত জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সাথে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন।

জেলা প্রশাসনের আয়োজনে জেলা প্রশাসক মো. আবদুল মতিন ও পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আলমগীর কবির, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের গাইবান্ধা জেলা ইউনিট কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার গৌতম চন্দ্র মোদক, ডেপুটি কমান্ডার মো. ওয়াশিকার ইকবাল মাজু, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নেরাজত ডেপুটি কালেক্টর এস এম ফয়েজ উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মন্তব্য