নতুন করে কাউকে হোম কোয়ারেনটাইনে পাঠানো হয়নি 

নতুন করে কাউকে হোম কোয়ারেনটাইনে পাঠানো হয়নি 

নতুন করে কাউকে হোম কোয়ারেনটাইনে পাঠানো হয়নি 

হোম কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় ১৪৭ জনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। 

নওগাঁ জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে কাউকে হোম কোয়ারেন্টিনে প্রেরন করা হয় নি। তবে হোম কোয়ারেন্টিনের ১৪ দিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় এই সময়ে ১৪৭ জনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। 
 
নওগাঁর সিভিল সার্জনের কন্টোলরুম সুত্রে প্রাপ্ত তথ্য মতে, উপজেলা ভিত্তিক ছাড়পত্র প্রাপ্তদের সংখ্যা হচ্ছে নওগাঁ সদর উপজেলায় ২১ জন, রানীনগর উপজেলায় ১৭ জন, আত্রাই উপজেলায় ৩৪ জন, মহাদেবপুর উপজেলায় ২২ জন, মান্দা উপজেলায় ২০ জন, বদলগাছি উপজেলায় ৬ জন, পত্মীতলা উপজেলায় ৯ জন, ধামইরহাট উপজেলায় ৪ জন, নিয়ামতপুর উপজেলায় ৩ জন, সাপাহার উপজেলায় ৩ জন এবং পোরশা উপজেলায় ৮ জন। 

গত ২৪ ঘন্টায় এই ১৪৭ জন হোম কোয়ারেন্টিন থেকে মুক্ত হওয়ার পর বর্তমানে জেলায় হোম কোয়ারেন্টিননে রয়েছেন ৪৮৭ জন। 

উল্লেখ্য এ পর্যন্ত নওগাঁ জেলায় সর্বমোট ১ হাজার ৮শ ৭৮ জনরেক হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছিল। এদের মধ্যে ১৪ দিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৩শ ৯১ জন হোম কোয়ারেন্টিন থেকে মুক্ত হয়েছেন।

সিভিল সার্জন জানিয়েছেন, হোম কোয়ারেন্টিন থেকে মুক্ত হওয়া কারও মধ্যে করোনা ভাইরাস-এর কোন নমুনা পাওয়া যায় নি। 

জেলা প্রশাসক মোঃ হারুন-অর-রশিদ জানিয়েছেন, নওগাঁ জেলায় করোনা প্রতিরোধে গৃহিত পদক্ষেপের ফলে যেসব দরিদ্র জনগোষ্ঠী ক্ষতির শিকার হয়েছেন তাদের সহযোগিতায় ১৪ লক্ষ ৩৫ হাজার টাকা এবং ৩৯১ মেট্রিক টন চাল সরকারীভাবে বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। বরাদ্ধকৃত এই অর্থ এবং চাল বিতরনের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। 

এদিকে, আজও নওগাঁ পৌরসভার উদ্যোগে শহরে জনসচেতনতা বৃদ্ধির প্রচার এবং বিভিন্ন সড়কে জীবানুনাশক পানি স্প্রে করতে দেখা গেছে। এ ছাড়াও বিভিন্ন সংগঠন শহরে করোনা ভাইরাসের লক্ষন এবং করনীয় সম্পর্কিত প্রচারনা অব্যাহত রেখেছে। 

পাঠকের মন্তব্য