লালপুরে বিষ মুক্ত টমেটো চাষে আগ্রহ বাড়ছে চাষীদের 

লালপুরে বিষ মুক্ত টমেটো চাষে আগ্রহ বাড়ছে চাষীদের 

লালপুরে বিষ মুক্ত টমেটো চাষে আগ্রহ বাড়ছে চাষীদের 

নাটোরের লালপুরে সেক্স ফেরোমন ফাঁদ, জৈব বালাইনাশক ব্যবহারের মাধ্যমে কীটনাশকের প্রয়োগ ছাড়াই সম্পূর্ণ বিষ মুক্ত নিরাপদ পদ্ধতিতে টমেটো চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের। পরিবেশ বান্ধব এই পদ্ধতির মাধ্যমে পরিবেশের ভারসম্য যেমন রক্ষা পাচ্ছে তেমনি টমেটোর উৎপাদন বৃদ্ধিপাচ্ছে পাশাপাশি বাজারে চাহিদাও দাম ভালো পাওয়ায় কৃষকরাও লাভবান হচ্ছে। 

লালপুর উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানাগেছে, ‘চলতি মৌসুমে লালপুর উপজেলার লালপুর চর, কদিমচিলান, শোভ ও হোসেন পুর এলকায় মোট ৪০ হেক্টর জমিতে টমেটোর চাষ হয়েছে। এই সকল জমি থেকে প্রায় ১২০ মেক্টিকটন টমেটো উৎপাদনের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।এর মধ্যে হোসেন পুর ও কদিমচিলান এলাকায় মোট ৫ হেক্টর জমিতে বিষ মুক্ত নিরাপদ ফসল উৎপাদন প্রকল্পের আওতায় সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহারের মাধ্যমে কোনপ্রকার কীটনাশক ব্যবহার ছাড়াই বিষ মুক্ত উপায়ে টমেটোর চাষ করা হয়েছে।’ 

সরেজমিনে উপজেলার হোসেনপুর গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহারের মাধ্যমে টমেটোর চাষ করা হয়েছে। জমির ভেতরে গিয়ে দেখা যায় গাছগুলিতে থোকায় থোকায় কাঁচা পাকা টমোটো ধরে আছে। টমেটোর ভরে গাছ মাচান ভেঙ্গে মাঠিতে নুয়ে পড়েছে। চাষীরা গাছ থেকে পাকা টমেটো বাজারে বিক্রয়ের জন্য তুলছেন এসময় কথা হয় টমেটো চাষী আসাদুলের সঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি এই বছর ২৫ হাজার টাকা খরচ করে দের বিঘা জমিতে কোন প্রকার বিষ না দিয়ে টমেটোর চাষ করেছি। কম খরচে এই পদ্ধতিতে টমেটোর চাষ করে টমেটোর উৎপাদনও বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে বাজারে এই টমেটোর চাহিদা ও দাম ভালো থাকায় ৭০ হাজার টাকার টমেটো বিক্রয় করেছি। এখনো গাছে যে পরিমানে টমেটো আছে তা বিক্রয় করে প্রায় ২০-২৫ হাজার টাকা আয় হবে। 

টমেটো চাষী রুপচান আলী বলেন, ‘বিষ মুক্ত পদ্ধতিতে এই প্রথম ২০ শতাংশ জমিতে টমেটোর চাষ করে এখন পর্যন্ত ৪৫ হাজার টাকার টমেটো বিক্রয় করেছি। এখনো ১০-১৫ হাজার টাকার টমেটো বিক্রয় করা যাবে। তিনি আরো বলেন, এই এলাকার অনেক কৃষকই আগামীতে বিষ মুক্ত এই পদ্ধতিতে টমেটো চাষ করবে। 

এব্যাপারে লালপুর উপজেলা কৃাষ অফিসার রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘লালপুর উপজেলায় ৪০ হেক্টর জমিতে টমেটোর চাষ হয়েছে এর মধ্যে ৫ হেক্টর জমিতে বিষ মুক্ত উপায়ে টমেটোর চাষ করা হয়েছে। পরিবেশ ও মানবদেহর কোন প্রকার ক্ষতি না করে, পরিবেশ বান্ধব জৈব কৃষি ও জৈবিক বালাই দমন ব্যবস্থাপনা ও প্রকল্পের আওতায় কোন প্রকার কীটনাশকের প্রয়োগ ছাড়া সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহারের টমেটোর চাষ বৃদ্ধিতে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের আগ্রহী করতে কৃষি অফিস কাজ করছে বলেও তিনি জানান। ’

পাঠকের মন্তব্য