ঢাকার মসজিদে কোয়ারেন্টাইনে তাবলীগ জামাতের ৩২১ জন 

ঢাকার মসজিদে কোয়ারেন্টাইনে তাবলীগ জামাতের ৩২১ জন 

ঢাকার মসজিদে কোয়ারেন্টাইনে তাবলীগ জামাতের ৩২১ জন 

দিল্লির নিজামুদ্দিনে আয়োজিত তাবলীগ জামাত -এর সমাবেশে যোগ দেওয়া মানুষগুলির জন্য ভারতে করোনার সংক্রমণ অনেকাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। এর জেরে এবার বাংলাদেশে বিদেশ থেকে আসা ৩২১ জন তাবলীগ জামাতের প্রচারককে ঢাকার দুটি মসজিদে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। কারও ঢোকা বা বেরোনো পুরোপুরি নিষিদ্ধ। তাবলিঘির বিবাদমান দুটি গোষ্ঠীর মধ্যে মৌলানা সাদের অনুগামী ১৯১ জনকে রাখা হয়েছে কাকরাইল জামে মসজিদে। অন্যদিকে মৌলানা জোবায়েরের অনুগামী বাকি ১৩০ জনকে রাখা হয়েছে যাত্রাবাড়ির কলাপট্টি মদিনা জামে মসজিদে।

দুটি গোষ্ঠীর লোকজনকেই ওই দুটি মসজিদে আলাদা ঘরে রেখে তালা দেওয়া হয়েছে। নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তাদের সঙ্গে কাউকে দেখা করতে দেওয়া হবে না। আর কেউ ওই ঘর থেকে বের হতে পারবে না। এপ্রসঙ্গে যাত্রাবাড়ি ও রমনা থানা পুলিশ জানিয়েছে, ৩২১ জনের মধ্যে ঢাকার কাকরাইল জামে মসজিদে ১৯১ জন আর বাকি ১৩০ জনকে রাখা হয়েছে যাত্রাবাড়ির কলাপট্টি মদিনা জামে মসজিদে।

যাত্রাবাড়ি থানার ওসি মহম্মদ মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘মদিনা মসজিদে রয়েছে ভারত, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ার নাগরিকরা। তাদের দাওয়াতির কাজ শেষ। বিমানবন্দর খুললেই তাদের নিজ নিজ দেশে পাঠানো হবে।’ আর রমনা থানার ওসি মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘বর্তমানে কাকরাইল মসজিদে কাউকে ঢুকতে ও বাহির হতে দেওয়া হচ্ছে না।’ 
 
দিল্লিতে তাবলীগ জামাতের একটি সমাবেশে যোগ দেওয়া অন্তত ৩০০ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। ওই সমাবেশে অংশ নেওয়া প্রায় ৯ হাজার মানুষ বিদেশ ও দেশের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছে। যার কারণে ভারতে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

পাঠকের মন্তব্য