করোনার ক্রান্তিকালে খুঁজে ফিরি

করোনার ক্রান্তিকালে খুঁজে ফিরি

করোনার ক্রান্তিকালে খুঁজে ফিরি

আওয়ামী সরকারের তিন মেয়াদ চলে যাচ্ছে। ক্ষমতাসীন দলের অনেক মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে আমার ভালো সম্পর্ক ছিল এবং এখনো আছে। অনেকেই ফোন দিয়ে খোঁজ খবরও নেন। পেশাগত কাজে উনাদের সঙ্গে কথা হয় আড্ডা হয় কিন্তু আমি কখনোই নিয়োগ-বদলি বাণিজ্যসহ কোন ধরনের স্বার্থের জন্য কখনো মন্ত্রী প্রতিমন্ত্রীদের কাছে যাইনি এবং কোনো ধরনের সুযোগ-সুবিধা নেইনি। আগামীতে যতদিন সাংবাদিকতা করবো, যদি বেঁচে থাকি তাহলে চেষ্টা করব এভাবেই যেন আমার পরবর্তী জীবনগুলো কেটে যায়। 

এই কথাগুলো বলছি এজন্য যে, বর্তমান সরকারের তিনজন তরুণ প্রতিমন্ত্রীকে নিয়ে দুটো কথা বলছি বলে। করোনা ভাইরাসের তাণ্ডবে সারা পৃথিবীর মতো বাংলাদেশও এখন কাঁপছে। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চোখে ঘুম নেই, নিরলসভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন কিন্তু কিছু মন্ত্রী-সচিবসহ কর্মকর্তাদের ভুল সিদ্ধান্তের কারণে বারবার সমালোচিত হচ্ছে সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই ত্রাতা হয়ে সব সমস্যা সামলে নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। কিন্তু এক প্রধানমন্ত্রী কত দিকে সামলাবেন ? 

এহেন পরিস্থিতিতে আমার ব্যক্তিগত মতামত তারুণ্য নির্ভর মন্ত্রিসভার কিছু কিছু মন্ত্রীদের কর্মকাণ্ড দেখে হাসি পায়, মাঝে মাঝে অবাক হয়ে ভাবি প্রধানমন্ত্রী বলছেন কি আর উনারা করছেন কি? এরই মধ্যে সরকারেরই কয়েকজন প্রতিমন্ত্রী নিজ নিজ মন্ত্রণালয়ে বেশ কিছু ইতিবাচক পদক্ষেপ নেয়া সাধারণ মানুষ আস্থা খুঁজে পেয়েছেন। দেশের করোনা পরিস্থিতির ক্রান্তিকালে আওয়ামী সরকারের মন্ত্রিসভায় বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী চৌধুরী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীদের মত আরো বেশি বেশি মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী খুব দরকার ছিল। এটা আমার একান্তই ব্যক্তিগত মতামত। উনাদের চিন্তাভাবনা, প্রচেষ্টাসহ নানা কর্মকাণ্ড দেখে আমার মত ক্ষুদে সাংবাদিক ভরসা খুঁজে পায়, পেশাগত কাজ করতে গিয়ে সাধারণ মানুষের মুখে ও তাদের বিষয়ে ইতিবাচক কথা শুনতে পাই। 

বাংলাদেশের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে আমি খুবই উদ্বিগ্ন বলেই কথাগুলো বলছি। আমি জানিনা করোনা ভাইরাসের থাবা বাংলাদেশ কতটুকু পড়বে? ইতালি স্পেন আমেরিকাসহ বিভিন্ন উন্নত দেশে চলছে মহামারী। অর্থবিত্ত আধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে তারা পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে। আর আমাদের মত এমন দুর্বল অবকাঠামোর দেশে কি হবে সেটা ভাবতেই আমার গা শিউরে উঠছে, প্রতিদিনই আতঙ্ক নিয়ে ঘুমাতে যাই। দেশের এমন দুর্দিনে বিপু- শাহরিয়ার- খালেদ ভাইদের মত আরো বেশি মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী থাকলে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে হয়তো এই সাম্প্রতিক পরিস্থিতি আরো শক্তভাবে সুন্দরভাবে মোকাবেলা করতে পারতেন। জানিনা আগামী দিনগুলো আমাদের কিভাবে যাবে? তবুও আশায় বুক বাঁধি আমাদের একজন প্রধানমন্ত্রী আছেন।

লেখক : সিনিয়র সাংবাদিক, কালেরকণ্ঠ
ফেসবুক স্ট্যাটাস লিঙ্ক : Haider Ali

পাঠকের মন্তব্য