কুতুবদিয়া আত্নসমর্পনকারী দস্যুরা অনুদান পাচ্ছে ১৪ লাখ টাকা

কুতুবদিয়া আত্নসমর্পনকারী দস্যুরা পাচ্ছে ১৪ লাখ টাকার অনুদান

কুতুবদিয়া আত্নসমর্পনকারী দস্যুরা পাচ্ছে ১৪ লাখ টাকার অনুদান

দেশের আইনশৃংখলা নিয়ন্ত্রনের লক্ষে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের ঘোষিত ডাকাত, জলদস্যু, দাগী পলাতক আসামী আত্নসমর্পনের জন্য সুযোগ দেন। তারই ধারাবাহিকতায় কুতুবদিয়া দ্বীপের ১৪ জলদস্যু আত্নসমর্পন করে বর্তমানে জেল হাজতে আছে।

গত বছর ২৩ নভেম্বর মহেশখালী উপকূলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী, মহা পুলিশ পরিদর্শকসহ উচ্চপদস্থ পুলিশ অফিসার, স্থানীয় প্রশাসন, রাজনৈতিক ব্যাক্তিবর্গসহ সকলের উপস্থিতিতে জলদস্যুরা অস্ত্রসহ আত্নসমর্পন করে। ঐ সময়ে কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন পুলিশ ফান্ড থেকে প্রতি জলদস্যু পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা অনুদান দেন। 

তখনই সরকারিভাবে ঘোষনা দেয়া হয় তাদেরকে পূনবাসন আত্নকর্মসংস্থানের জন্য প্রতিজনকে একলাখ টাকা অনুদান হিসেবে দেয়া হবে। এ অনুদানের টাকা চলতি মাসে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক,জেলা পুলিশ সুপার বরাবরে চেক হস্তান্তর করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়।

মঙ্গলবার (৭এপ্রিল) কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার কুতুবদিয়া দ্বীপের আত্নসমর্পনকৃত ১৪ জলদস্যুর জন্য ১৪ লাখ টাকা চেক কুতুবদিয়া থানার ওসিকে হস্তান্তর করেন। এ অনুদানের টাকা বর্তমানে কুতুবদিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসির হেফাজতে রয়েছে।

এ ব্যাপারে ওসি মোঃ দিদারুল ফেরদাউসের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, কুতুবদিয়া উপকূলের ১৪ জলদস্যু সরকারি ঘোষিত সময়ে আত্নসমর্পন করে। তাদের পূর্নবাসন ও কর্মসংস্থানের জন্য প্রতিজনকে একলাখ টাকা করে ১৪ লাখ টাকার অনুদান দিয়েছে সরকার। আত্নসমর্পনকারী পরিবার স্ব-স্ব নামে ব্যাংক একাউন্ট হিসাব নাম্বার দিলে তাদের একাউন্টে টাকাগুলো জমা হবে বলে জানান।

পাঠকের মন্তব্য