গরিব কৃষকের ধান কাটা শুরু করেছে বাংলাদেশ কৃষক লীগ

গরিব কৃষকের ধান কাটা শুরু করেছে বাংলাদেশ কৃষক লীগ

গরিব কৃষকের ধান কাটা শুরু করেছে বাংলাদেশ কৃষক লীগ

সরদার মাহামুদ হাসান রুবেল, বিশেষ প্রতিনিধি : নভেল করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে থাকায় ঘরবন্দি হয়ে পড়েছে মানুষ। এ অবস্থায় বোরো ধানের ফসল কাটা নিয়ে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ কৃষক। কৃষি শ্রমিক অভাবের কারণে দেশের অনেক জায়গার কৃষক ধান কাটতে পারছে না। এ অবস্থা থেকে গরিব কৃষককে মুক্তি দিতে সারাদেশে কৃষকের খেতের ধান কেটে দেওয়ার ঘোষণা দিয়ে কাজ শুরু করেছে বাংলাদেশ কৃষক লীগ। 

সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ ও সাধারন সম্পাদক এড. উম্মে কুলসুম স্মৃতির পক্ষ থেকে কৃষকের ধান কেটে দেওয়ার কথা জানানো হয়। তারা জানান, করোনার কারনে দেশজুড়ে ধান কাটা শ্রমিকের সংকট হওয়ায় বেশ কিছু অঞ্চলে কৃষকেরা পাকা ধান কাটতে হিমশিম খাচ্ছেন। 

এমতাবস্থায় বাংলার দুঃখী–অসহায় মানুষের শেষ ঠিকানা কৃষকরত্ন, দেশরত্ন শেখ হাসিনার আদর্শিক ভ্যানগার্ড বাংলাদেশ কৃষক লীগ বদ্ধপরিকর। কৃষক সব ইউনিটকে (জেলা/উপজেলা/থানা/পৌর/ইউনিয়ন/ওয়ার্ড) নিজ নিজ এলাকায় কৃষকদের প্রয়োজনীয়তার নিরিখে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে পাশে থেকে ধান কাটাসহ সর্বাত্মক সহযোগিতার জন্য উদাত্ত আহ্বান জানানো হয়েছে। একাজকে গতিশীল করতে কেন্দ্র থেকে ওয়ার্ড পর্যায়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে। 

প্রচার মাধ্যমগুলোতে জেলা পর্যায়ের যোগাযোগের হট লাইন নাম্বার প্রকাশ করা হয়েছে। যেন দেশের যে কোন প্রান্তের কৃষক সাহায্য পেতে পারে। কৃষক লীগের উদ্যোগে গাইবান্ধা থেকে প্রশাসনের সাহায্য নিয়ে কয়েকশত কৃষি শ্রমিক কিশোরগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ সহ সিলেট অঞ্চলে পাঠানো হয়েছে। ইতিমধ্যে তারা ফসল ঘরে তোলা শুরু করেছে। 

এছাড়াও তারা কৃষক লীগের নেতা কর্মীর উদ্দেশ্য আহবান জানিয়ে বলেন, মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের দরিদ্র ও সীমিত আয়ের মানুষের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। এই সংকটকালে দুস্থ মানুষের পাশে থেকে সাহায্য করতে হবে। সবাইকে করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে সরকার ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) নির্দেশনা মেনে চলা সহ পাশের মানুষকে সচেতন করতে হবে। সচেতনতাই পারে দেশকে করোনার হাত থেকে রক্ষা করতে। দেশটাকে নিরাপদে রাখতে আরোও বলেন, 'খুব সাধারণ কিছু নির্দেশিকা মেনে চললেই, আমরা মনে করি এই রোগ থেকে মুক্ত থাকতে এবং দেশকে নিরাপদ রাখতে পারব।

পাঠকের মন্তব্য