করোনায় মারা গেলেন দেশের অন্যতম চিকিৎসক

করোনায় মারা গেলেন দেশের অন্যতম চিকিৎসক

করোনায় মারা গেলেন দেশের অন্যতম চিকিৎসক

মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে মারা গেছেন অন্যতম হেমাটোলজিস্ট এবং ল্যাবরেটরি মেডিসিন চিকিৎসক কর্নেল (অব.) প্রফেসর ডা. মো. মনিরুজ্জামান।

রোববার (৩ মে) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। বাংলাদেশ ডক্টরস ফাউন্ডেশনের সমন্বয়ক ডা নিরুপম দাশ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ নিয়ে করোনায় প্রাণ হারালেন দেশের দুই চিকিৎসক।

ডা. মো. মনিরুজ্জামান ধানমন্ডির আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিফ হেমোটোলজিস্ট ছিলেন।

হাসপাতালের মুখপাত্র ডা. এহতেশামুল হক জানিয়েছেন, কর্নেল (অব.) প্রফেসর ডা. মনিরুজ্জামান রোববার বিকেলে কাজ শেষে মিরপুর ডিওএইচএসর বাসায় ফেরেন। এরপর ইফতারের আগে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওইসময় তাৎক্ষণিক তার কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হলে তার পজিটিভ ফলাফল আসে।

তিনি জানান, করোনা পজিটিভের বিষয়টি সিএমএইচ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগের ভিত্তিতে জানা গেছে, কোনও কাগজপত্র এখনও হাতে আসেনি। ডা. এহতেশামুল হক জানান, এই খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আনোয়ার খান মডার্ণ হাসপাতাল ও মেডিকেল কলেজের হেমাটোলজি বিভাগে কর্তব্যরত চার জনকে তাৎক্ষণিক হোম কোয়ারেন্টিনে এবং বিভাগটি ডিসইনফেক্টেড করার কার্যক্রমও হাতে নেওয়া হয়েছে।

এদিকে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েকদিন থেকে জ্বর ও বুকে ব্যথা অনুভব করছিলেন ডা. মনিরুজ্জামান। একপর্যায়ে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয় এবং তিনি সেখানেই মারা যান। এর আগে গত ১৫ এপ্রিল দেশে প্রথম চিকিৎসক হিসেবে করোনাভাইরাসে মৃত্যু হয় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. মঈন উদ্দিনের।

ডক্টরস ফাউন্ডেশনের তথ্য অনুযায়ী প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৫৪ জন চিকিৎসক যার মধ্যে সুস্থ হয়েছেন মাত্র ২০ জন।

পাঠকের মন্তব্য