করোনাভাইরাস শনাক্ত করবে ‘স্মেল ক্যামেরা’

করোনাভাইরাস শনাক্ত করবে ‘স্মেল ক্যামেরা’

করোনাভাইরাস শনাক্ত করবে ‘স্মেল ক্যামেরা’

বিমান তৈরির কোম্পানি এয়ারবাস এমন এক ধরনের সেন্সর তৈরি করছে, যা করোনাভাইরাস শনাক্ত করতে পারবে। কোম্পানিটির আল্ট্রা সেনসিটিভ ‘স্মেল ক্যামেরা’ তৈরির কাজ শুরু হয়েছে ২০১৭ সালে।

এই বিশেষ ক্যামেরা বিমানে থাকা বিস্ফোরকের গন্ধ শুঁকে তা বের করতে পারবে। অভিনব এই সেন্সরগুলো বায়োলজিকাল কোষের মাইক্রো প্রসেসর ব্যবহার করে বাতাসে ভেসে বেড়ানো নির্দিষ্ট কেমিক্যাল বা মাইক্রোব শনাক্ত করতে পারে। একই ধরনের টেকনোলজি ক্যানসার ও ইনফ্লুয়েঞ্জা শনাক্ত করার কাজে ব্যবহার করা হয়েছে।

আশা করা হচ্ছে, এই প্রযুক্তির মাধ্যমে সার্স-কোভ-২ করোনাভাইরাস যা কোভিড-১৯ রোগের জন্য দায়ী, তা কোনো এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে কিনা, তা আগেই সতর্ক করা সম্ভব হবে। নতুন এই ‘স্মেল ক্যামেরা’ উদ্ভাবনের সাথে যারা জড়িত, তারা বলছেন এ বিষয়ে ইতোমধ্যে ইতিবাচক ফল পাওয়া গেছে।

এয়ারবাসের সাথে এই প্রজেক্টে জড়িত আছে ক্যালিফোর্নিয়া ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান কোনিকু। এয়ারবাস জানিয়েছে, নির্দিষ্ট মোলিকিউলার কম্পাইন্ড শনাক্তের পর স্মেল ক্যামেরার সেন্সরগুলো অ্যালার্মের মাধ্যমে তা জানিয়ে দেবে। এই সিস্টেমটি কনাক্টলেস এবং খুব দ্রুত, সাশ্রয়ী ও নির্ভরযোগ্য বলেই দাবি করছে এয়ারবাস।

কোম্পানিটি বলছে, তাদের এই বিস্ফোরক শনাক্তকারী ডিভাইসটি চলতি বছরের শেষ দিকে বিভিন্ন এয়ারপোর্টের স্ক্রিনিং এরিয়াতে ব্যবহার করা হবে। এরপর সব বিমানেও এই ‘স্মেল ক্যামেরা’ ব্যবহার করা শুরু হবে। এয়ারবাস কর্মকর্তা জুলিয়ান তোজিয়াও বলেছেন, ‘এই প্রযুক্তি খুব দ্রুততম সময়ে কাজ করবে। আদর্শ পরিবেশে ১০ সেকেন্ডের মধ্যেই ফল জানা যাবে। এটা একটা দারুণ ব্যাপার, ভবিষ্যতে তা আরো উন্নত হবে আশা করছি।’

পাঠকের মন্তব্য