রাঙ্গাবালীতে আম্ফান'র তান্ডবে বিধ্বস্ত বিদ্যালয় ঘর

রাঙ্গাবালীতে আম্ফান'র তান্ডবে বিধ্বস্ত বিদ্যালয় ঘর

রাঙ্গাবালীতে আম্ফান'র তান্ডবে বিধ্বস্ত বিদ্যালয় ঘর

সুপার সাইক্লোন আম্পানে তান্ডবে রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের টুঙ্গিবাড়িয়া গ্রামের বাজার সংলগ্ন  টুঙ্গিবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি বিধ্বস্ত হয়ে ২লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিগ্রস্থ  হয়েছে।

১৯৯২সালে প্রতিষ্ঠিত এই বিদ্যালয়টি, ১৯৯৮সালে স্বীকৃতি লাভ করলেও পায়নি কোন পাকা ভবন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন,  সাইক্লোন আম্পানে আমাদের বিদ্যালয়ের একাংশ উড়িয়ে নিয়ে গেছে ও শিক্ষকদের  লাইব্রেরী ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে আমরা দ্রুত গুরুত্বপূর্ণ কিছু জিনিসপত্র অপসারণ করতে সক্ষম হয়েছি।

 আরো বলেন, ২০১৩ সাল থেকে বিদ্যালয়ের শতভাগ পাশ এবং বৃত্তি রয়েছে, গত বছরে এ বিদ্যালয়ের ২টি ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিসহ ৫জন ছাত্র/ছাত্রী বৃত্তি লাভ করেছে। বিদ্যালয়ে বর্তমানে ৬ষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির পর্যন্ত ৪৫০ জন ছাত্র ছাত্রী অধ্যায়নরত আছে। দীর্ঘ ২৮ বছরে আমরা কোন  ভবন পাইনি। প্রতিবছর ঘূনিঝর আসলেই আমরা দুশ্চিন্তায় থাকি  উড়িয়ে নিয়ে যাওয়ার! 

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি  জাহিদ হাসান পিয়েল এর কাছে জিজ্ঞেসাবাদে তিনি বলেন, বিষয়টি সরেজমিনে আমি সকালে গিয়ে দেখেছি। বিদ্যালয়টি টিনশেট ও অবকাঠামো দুর্বল হওয়ায় বিদ্যালয়ের একাংশ বিধ্বস্ত হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তিনি আরো জানান বর্তামান সংসদ সদস্য মহিবুর রহমান মহিব (এম পি) মহোদয় গত ১০মার্চ ২০২০ইং বিদ্যালয়ের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে এসে আশ্বস্ত করেছেন দ্রুত সময়ের মধ্যে টুঙ্গিবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে একটি উন্নতমানের ভবনের ব্যবস্থা করবেন।

এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার অনাদি কুমার বলেন, বিদ্যালয়টি ক্ষতিগ্রস্তের তালিকায় অনর্ভুক্ত করা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য